অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশের উপকূল থেকে ৬০৫ কিলোমিটার দক্ষিণে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস


বাংলাদেশের উপকূল থেকে ৬০৫ কিলোমিটার দক্ষিণে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস

বাংলাদেশের উপকূল থেকে ৬০৫ কিলোমিটার দক্ষিণে ভারতের আন্দামান দ্বীপপুঞ্জের কাছে একটি নিন্মচাপ সোমবার সকালে ঘূর্ণিঝড়ে রূপান্তরিত হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। 

বাংলাদেশের উপকূল থেকে ৬০৫ কিলোমিটার দক্ষিণে ভারতের আন্দামান দ্বীপপুঞ্জের কাছে একটি নিন্মচাপ সোমবার সকালে ঘূর্ণিঝড়ে রূপান্তরিত হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।

ঘূর্ণিঝড়টির নামকরণ করা হয়েছে ইয়াস যা আরও শক্তিশালী হয়ে উত্তর পশ্চিমাঞ্চলের দিকে ভারতের ওড়িশার উপকূলের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বলে আবহাওয়া দফতরের এক বূলেটিনে বলা হয়েছে। বাংলাদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান আজ বলেছেন ঘূর্ণিঝড় ইয়াস এখন যে পথ ধরে এগোচ্ছে তা যদি একই রকম থাকে তবে বাংলাদেশের ক্ষতির ঝুঁকি কম হবে।

ঢাকায় ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি বিষয়ক এক সভা শেষে তিনি বলেন ঘূর্ণিঝড় ইয়াস এখনও অতটা শক্তিশালী হতে পারেনি। তিনি বলেন বর্তমানে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস এর গতিপথ সরাসরি ওড়িশার দিকে। যদি এই গতিপথ একই রকম থাকে তবে বাংলাদেশের উপকূলে এর ক্ষতিকর প্রভাব পড়বেনা না বলে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন।

ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন সবই নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছে এবং ঘূর্ণিঝড়টি উপকূলে না পৌঁছান পর্যন্ত একে পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। তিনি অবশ্য বলেছেন যদি কোনও কারণে এটা দিক পরিবর্তন করে উত্তর ও উত্তর-পশ্চিম দিকে সরে আসে তবে বাংলাদেশের উপকুলের মানুষকে যাতে আশ্রয়কেন্দ্রে নিয়ে আসা যায় সে জন্য আশ্রয়কেন্দ্রগুলো প্রস্তুত করা হয়েছে এবং একই সাথে জরুরী পরিস্থিতি মোকাবেলায় স্থানীয় প্রশাসন ও সেচ্ছাসেবীদের প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া দফতরের সর্বশেষ বূলেটিনে বলা হয়েছে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস প্রায় একই অবস্থানে রয়েছে এবং এর গতিপথও একই দিকে রয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে সাগর উত্তাল থাকায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসহ দেশের সকল উপকূলীয় অঞ্চলে দুই নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া দফতর।

বাংলাদেশের উপকূল থেকে ৬০৫ কিলোমিটার দক্ষিণে ঘূর্ণিঝড়
please wait

No media source currently available

0:00 0:02:23 0:00


XS
SM
MD
LG