অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মিয়াম্মারে কারাবন্দী রয়টার্সের দুই সংবাদ কর্মিকে মুক্তি দেয়া হয়েছে


রয়টার্সের যে দু’ই সংবাদ কর্মিকে মিয়াম্মারের উপনিবেশিক আমলের সরকারী গোপন তথ্য আইনে গ্রেফতার করা হয়েছিলো তাঁদেররকে এখন মুক্তি দেওয়া হয়েছে। ওয়া লৌন এবং কিয়াও সৌ ঊ সেই হাজার হাজার কারাবন্দীর সঙ্গে মুক্তি পেলেন প্রেসিডেন্ট ঊইন মিয়িন্ট যাঁদেরকে কিনা এপ্রিলের সতেরো তারিখে শুরু ঐতিহ্য ধারার নব বর্ষ পালনের কাছাকাছির সময়ে সরকারের বাৎসরিক ক্ষমা মঞ্জুরীর অংশ হিসেবে মুক্তি দিলেন।

রয়টার্সের যে দু’ই সংবাদ কর্মিকে মিয়াম্মারের উপনিবেশিক আমলের সরকারী গোপন তথ্য আইনে গ্রেফতার করা হয়েছিলো তাঁদেররকে এখন মুক্তি দেওয়া হয়েছে। ওয়া লৌন এবং কিয়াও সৌ ঊ সেই হাজার হাজার কারাবন্দীর সঙ্গে মুক্তি পেলেন প্রেসিডেন্ট ঊইন মিয়িন্ট যাঁদেরকে কিনা এপ্রিলের সতেরো তারিখে শুরু ঐতিহ্য ধারার নব বর্ষ পালনের কাছাকাছির সময়ে সরকারের বাৎসরিক ক্ষমা মঞ্জুরীর অংশ হিসেবে মুক্তি দিলেন।

ইয়াঙ্গুনের কুখ্যাত ইনসেইন কারাগার থেকে বের হওয়ার সময় সমবেত সাংবাদিকবৃন্দ তাঁদেরকে সম্বর্ধনা জ্ঞাপন করেন। ওয়া লৌন – কর্তব্য পালন অব্যাহত রাখারই প্রত্যয় ব্যক্ত করেন – সতীর্থদের উদ্দেশ ক’রে বলেন – আমার আর তর সইছে না, কখোন গিয়ে তড়িখড়ি কাজ শুরু ক’রবো আবার সে কথা ভেবে।

এ দু’ই সাংবাদিককে দোষি সাব্যস্ত করা হয সেপ্টেম্বর মাসে এবং তাঁদেরকে সাত বছরের কারাদন্ড দেওয়া হয়। উত্তর পশ্চিমাঞ্চলের রাখাইন প্রদেশে সামরিক বাহিনীর নৃশংস অভিযানের সংবাদ সংগ্রহ ও তা পরিবেশন ক’রছিলেন তাঁরা – যে অভিযানের তাড়া খেয়ে সাত লক্ষ রোহিঙ্গা মূসলিম দু’ হাজার সতেরোর আগস্ট মাসে প্রাণভয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে গিয়ে হাজির হন। এ দু’ই সাংবাদিককে গ্রেফতার করা হয় ঐ বছরেরই ডিসেম্বর মাসে ইয়াঙ্গুনের একটি রেস্তোরাঁ থেকে – তাঁরা যখন কিনা ঐ রেস্তোরাঁয় দু’ই পুলিশ কর্মির সঙ্গে দেখা করেন - যাঁরা ওঁদের কাছে কিছু কাগজপত্র হস্তান্তর করেছিলেন। ঈন দিন গ্রামের দশ রোহিঙ্গাকে পুলিশ ও সৈন্যেরা যে নৃশংশভাবে হত্যা করে ঐ দু’ই সাংবাদিক সে ব্যাপারে খোঁজখবর ক’রছিলেন।

XS
SM
MD
LG