অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রোহিঙ্গা সংকটের আশু সমাধান চায় তুরস্ক


রোহিঙ্গা সংকটের আশু সমাধান চায় তুরস্ক

বাংলাদেশে প্রতিরক্ষা সামগ্রী বিক্রি করতে চায় তুরস্ক। একই সঙ্গে চায় বিনিয়োগ ও বাণিজ্য দুই বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করতে। ঢাকা সফররত তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত সাভাসগলু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকের পর এই আগ্রহ ব্যক্ত করেছেন।

বাংলাদেশে প্রতিরক্ষা সামগ্রী বিক্রি করতে চায় তুরস্ক। একই সঙ্গে চায় বিনিয়োগ ও বাণিজ্য দুই বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করতে। ঢাকা সফররত তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত সাভাসগলু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকের পর এই আগ্রহ ব্যক্ত করেছেন। তার কথায়, আমাদের প্রতিরক্ষা পণ্যের গুণগত মান অত্যন্ত ভাল। তুলনামূলকভাবে দামও কম। এগুলো কিনতে কোনো শর্ত আরোপ করা হয় না।

রোহিঙ্গা সংকটের আশু সমাধান চেয়ে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দুঃখের বিষয় হচ্ছে, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এ বিষয়ে যথেষ্ট করছে না। তবে তুরস্ক সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে। তিনি বলেন, আমরা শুধু কথা শুনতে চাই না। কাজেও এর সঠিক প্রতিফলন দেখতে চাই। রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরে বাংলাদেশ সরকারের সিদ্ধান্তের প্রশংসা করেন মেভলুত সাভাসগলু। বলেন, রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের জন্য বড় এক বোঝা। তাদেরকে অবশ্যই দেশে ফিরতে হবে। তবে নিরাপদে ও সম্মানের সঙ্গে যাতে ফিরতে পারে সে জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ভূমিকা রাখতে হবে।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদুল মোমেন বলেন, বাণিজ্য, কোভিডসহ বহুপক্ষীয় সম্পর্ক বাড়াতে আমরা আগ্রহী। এজন্য একসঙ্গে কাজ করতেও আমরা প্রস্তুত। বিকেলে বারিধারায় তুরস্কের নতুন দূতাবাস ভবন উদ্বোধন করেন দু'দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এর আগে গত সেপ্টেম্বরে আংকারায় বাংলাদেশের নতুন দূতাবাস ভবন উদ্বোধন করা হয়। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, উভয় পক্ষের সুবিধাজনক সময়ে বঙ্গবন্ধু ও কামাল আতাতুর্কের আবক্ষ মূর্তি দুই দেশে উন্মোচন করা হবে। কোভিড পরিস্থিতির উন্নতি হলে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশ সফরে আসবেন এটাও জানানো হয়। ঢাকা থেকে মতিউর রহমান চৌধুরী

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:27 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG