অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

শিক্ষার্থীদের চুল কাটার ঘটনায় আলোচিত শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিন বরখাস্ত


ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন

সিরাজগঞ্জের রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের চুল কাটার ঘটনায় জড়িত, আলোচিত শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনকে এবার সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেট। বৃহস্পতিবার রাতে সিন্ডিকেটের এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সেই সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। অপরদিকে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ‘রবীন্দ্র অধ্যায়ন’ বিভাগের প্রধান লায়লা ফেরদৌস হিমেলকে প্রধান করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটিকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

‘রবীন্দ্র অধ্যায়ন’ বিভাগের প্রধান লায়লা ফেরদৌস হিমেল ভয়েস অফ আমেরিকাকে এসব তথ্য জানিয়ে আরো বলেন, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত ভিসি আব্দুল লতিফের সভাপতিত্বে গতকাল রাতের সিন্ডিকেট সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর আবু মো. দেলোয়ার হোসেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব-৩ সৈয়দা নওয়ারা জাহান ও রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. সোহরাব আলী।

এদিকে ১৪ শিক্ষার্থীর চুলকেটেয়ার ঘটনায় আন্দোলনের মুখে ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন গত ২৯ সেপ্টেম্বর ‘সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ’ বিভাগের চেয়ারম্যানের পদ, সিন্ডিকেটের সদস্য ও প্রক্টর কমিটির সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করেন। পদত্যাগের পর তিনি আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বহিরাগত উল্লেখ করায় আবারো আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। এবার তাদের দাবী ওই শিক্ষককে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হোক।

‘রবীন্দ্র অধ্যায়ন’ বিভাগের প্রধান লায়লা ফেরদৌস হিমেল বলেন, শিক্ষার্থীরা ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনের স্থায়ী পদত্যাগের দাবীতে বুধবার সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবনে তালা ঝুলিয়ে এই অনশন পালন করছে। আমরা শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে কিছুটা নমনীয় করতে পেরেছি। আগামী রবিবার তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে মর্মে শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করলে তারা আন্দোলন কর্মসূচি থেকে সড়ে আসে।

XS
SM
MD
LG