অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

শীতে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে- শেখ হাসিনা


শীতে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে- শেখ হাসিনা

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণকে সতর্ক করেছেন। বলেছেন, সামনে শীত। এসময়ে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে যেতে পারে। তাই আমাদেরকে এখন থেকে প্রস্তুত থাকতে হবে। রোববার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর ত্রান ও কল্যাণ তহবিলে অনুদান দেয়ার সময় শেখ হাসিনা এই হুঁশিয়ারি দেন।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনগণকে সতর্ক করেছেন। বলেছেন, সামনে শীত। এসময়ে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে যেতে পারে। তাই আমাদেরকে এখন থেকে প্রস্তুত থাকতে হবে। রোববার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর ত্রান ও কল্যাণ তহবিলে অনুদান দেয়ার সময় শেখ হাসিনা এই হুঁশিয়ারি দেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানুষ সত্যিই কষ্ট পাচ্ছে। তামাম দুনিয়ায় একই পরিস্থিতি। তবুও আমরা ব্যবসা বাণিজ্য সচল রাখার জন্য কার্যকর ব্যবস্থা নিয়েছি। প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে। করোনা মোকাবিলায় যা যা করা দরকার সরকার তাই করছে।

ওদিকে টিকা নিয়ে বিশ্বব্যাপী যখন দুশ্চিন্তার কালোমেঘ তখনই ইউরোপীয় কমিশন একটি আনন্দবার্তা দিয়েছে। বলেছে, গরিব দেশগুলোর কোনো চিন্তা নেই। ইউরোপীয় কমিশন আছে তাদের পাশে। ইতিমধ্যেই করোনার টিকা সাহায্য হিসেবে চল্লিশ কোটি ইউরো বরাদ্দ করেছে। যা দিয়ে আট কোটি আশি লাখ ডোজ টিকা কেনা যাবে। 'টিম ইউরোপ' ব্যানারে এই ঋণ দেয়া হবে। যোগ্য নিম্ন ও মধ্য আয়ের দেশের মধ্যে তা স্থানান্তর করা হবে।

কমিশনের পক্ষ থেকে উৎপাদনকারী ও তাদের উৎপাদন ক্ষমতা বাড়িয়ে সবদেশে টিকা সরবরাহ নিশ্চিত করার প্রত্যয় রয়েছে কমিশনের ঘোষণায়। টিকা দেয়া অথবা উপকরণ রপ্তানিতে কোনো বিধি নিষেধ না দেয়ার পক্ষে মত দিয়েছে ২৭ জাতির এই কমিশন। ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডার লেন স্পষ্ট করে বলেছেন, সবাই যাতে টিকা পায় এটাই আমাদের প্রত্যাশা। মনে রাখতে হবে, সবাই নিরাপদ না হওয়া পর্যন্ত কেউই নিরাপদ নয়।

জাতিসংঘ শিশু তহবিল ইউনিসেফ ইতিমধ্যেই ঘোষণা দিয়েছে, কোভিড-১৯ এর টিকা সংগ্রহ ও বিতরণে তারা নেতৃত্ব দেবে। সংস্থাটি বলেছে, টিকা যখন পাওয়া যাবে তখন যেন সবদেশ নিরাপদে, দ্রুত ও সমতার ভিত্তিতে পায় এটাই তারা নিশ্চিত করবে। বাংলাদেশের বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, ইউনিসেফ এর এই উদ্যোগ টিকার সার্বজনিন প্রাপ্তি নিশ্চিত করবে। বিতরণ ব্যবস্থাও হবে স্বচ্ছ।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার আরও ২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন করে রোগী শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ৫৪৪ জন। এই সময়ে সুস্থ হয়েছেন দুই হাজার ১৭৯ জন। শনাক্তের বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪২ শতাংশ। ঢাকা থেকে মতিউর রহমান চৌধুরী

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:56 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG