অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারতীয় চলচ্চিত্রে পদ্মশ্রী  জয়ী কিংবদন্তী অভিনেতা ওম পুরী প্রয়াত


প্রয়াত হলেন ভারতীয় চলচ্চিত্রের অন্যতম ব্যক্তিত্ব পদ্মশ্রী জয়ী কিংবদন্তী অভিনেতা ওম পুরী। আজ ভারতীয় সময় সকালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় তাঁর। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। চলচ্চিত্র পরিচালক অশোক পন্ডিত যিনি অভিনেতার ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিলেন তিনিই প্রথম টুইটারে তাঁর মৃত্যু খবর নিশ্চিত করেন। পরে ওম পুরীর স্ত্রী নন্দিতা পুরী খবরের সত্যতা স্বীকার করে নেন। প্রসঙ্গত বলা যেতে পারে গতকাল সন্ধে বেলা শ্যুটিং সেরে বাড়ি আসেন অভিনেতা। তারপর থেকে তাঁকে আর দেখা যায়নি। শুক্রবার সকালে তাঁর ড্রাইভার এসে দরজায় বেল বাজালে কেউ দরজা খোলেন না। এরপর গাড়ির চালক অন্যদের খবর দেন। আজ সন্ধে ছটায় তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।

১৯৭২ সালে মরাঠি ছবি দিয়ে কাজ শুরু করেন তিনি। চলচ্চিত্রের পাশাপাশি মঞ্চেও অভিনয় করেছেন তিনি। কাজ করেছিলেন সত্যজিৎ রায়ের সঙ্গে। প্রসঙ্গত, নাসিরউদ্দীন শাহ, শাবানা আজমি, স্মিতা পাটিলের মতো একইসঙ্গে মূলধারার এবং সমান্তরাল দুধরনের ছবিতেই অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে ওম পুরীকে। এই অভিনেতাদের হাত ধরেই আশির দশকে ছবির জগৎে এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা হয়েছিল।অভিনয়ের জন্য দেশে-বিদেশে অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছেন ওম পুরী। ১৯৫০ সালে হরিয়ানার আম্বালায় পঞ্জাবি পরিবারে জন্ম ওমপুরীর। তাঁর বাবা ভারতীয় রেল এবং সেনাবাহিনীর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

পুণের ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউটে পড়াশোনা করেছিলেন তিনি। দিল্লির ন্যাশলান স্কুল অফ ড্রামারও ছাত্র ছিলেন ওম পুরী। সেখানে তাঁর সহপাঠী ছিলেন অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ। ১৯৭২ সালে ওম পুরীর আত্মপ্রকাশ মরাঠি ছবি ‘ঘাসিরাম কোতয়াল’-এ। ‘অর্ধ সত্য’ ছবির জন্য পেয়েছেন শ্রেষ্ঠ অভিনেতার জাতীয় পুরস্কার। অভিনয় করেছেন সত্যজিৎ রায়ের ‘সদগতি’ ছবিতে।দুবার জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন এবং ১৯৯০ সালে পদ্মশ্রী সম্মানে সম্মানিত হন ওম পুরী। তাঁকে শেষবার পর্দায় দেখা গিয়েছিল পাকিস্তানি কমেডি ছবি ‘অ্যাক্টর ইন ল’-তে। ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে পর্দায় মুক্তি পেয়েছিল এই ছবি। জঙ্গল বুকে ওম পুরী নিজের কন্ঠ দিয়েছিলেন ‘বাঘিরা’ চরিত্রের জন্যে। তাঁর বহু ছবির মধ্যে মনে রাখার মত ‘অর্ধ সত্য, ‘আরোহন’, ‘দ্রোহকাল’, ‘জানে ভি দো ইঁয়ারো’, ‘মির্চ মশালা’, ‘পার’-এর মত ছবি। সম্প্রতি তাঁকে বলিউডি ছবি ‘বজরঙ্গি ভাইজান’ এবং ‘ঘায়েল ওয়ানস এগেন’-এও অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে।ওম পুরীর অন্যতম স্মরণীয় অভিনয় দেখা গিয়েছে মার্কিন কমেডি ড্রামা ‘দ্য হানড্রেড ফুট জার্নিতে’। ২০১৪ সালে মুক্তি পাওয়া এই কমেডি ড্রামায় তাঁর সঙ্গে কাজ করেছিলেন স্টিভেন স্পিলবার্গ এবং হেলেন মিরেন। এছাড়া ‘সিটি অফ জয়’, ‘গাঁধী’, ‘দ্য রিলাকট্যান্ট ফান্ডামেন্টালিস্ট’-এও তাঁর অভিনয় যথেষ্ট প্রশংসা পেয়েছে। ওম পুরী তাঁর অভিনয় প্রতিভার ছাপ রেখে গিয়েছেন মূলধারার পাকিস্তানি, ভারতীয় এবং ব্রিটিশ ছবিতেও। তাঁর প্রয়াণে শোকাহত বলিউড থেকে টলিউড, নাট্যজগৎ থেকে রাজনৈতিক মহল। ওম পুরীর প্রয়াণে দেশের বিভিন্ন ব্যক্তিত্ব রাও শোক প্রকাশ করেছেন। শোক প্রকাশের সাথে সাথে প্রয়াত অভিনেতার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ও।

XS
SM
MD
LG