অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

'বাংলাদেশে ২৫শে মার্চ গণহত্যা দিবস' :আজকের আলাপন পরিচালনা করেছেন আনিস আহমেদ


'বাংলাদেশে ২৫শে মার্চ গণহত্যা দিবস' :আজকের আলাপন পরিচালনা করেছেন আনিস আহমেদ

আমাদের শুক্রবারিক কল ইন শো , আলাপনে আজকের বিষয় হচ্ছে বাংলাদেশে ২৫শে মার্চ গণহত্যা দিবস এবং এর তাৎপর্য ।

আমরা সকলেই জানি যে ১৯৭১ সালের ২৫শে মার্চের কালরাত্রিতে অপারেশান সার্চ লাইটের মাধ্যমে বাঙালি নিধন যোগ্য শুরু হয়। তদনীন্তন পাকিস্তআন সেনাবাহিনীর এই নিধনযজ্ঞ চলে পুরো ন’মাস এবং তাদের সঙ্গে যুক্ত হয় রাজাকার, আল বদর , আল শামস ‘এর মতো কিছু উগ্রবাদী গোষ্ঠিও । এখানে বলাই বাহুল্য যে আন্তর্জাতিক আইনে Genocide , Democide এবং Generderocide যে সংজ্ঞা রয়েছে একাত্তরের বাংলাদেশে এর সবকিছুই সংঘটিত হয়। R J Rummel , তাঁর বই Statistics of Democide ‘এ পরিস্কার লিখেছেন যে প্রথম দু দিনেই অন্তত ৫০ হাজার লোককে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু সংখ্যাটাই বড় কথা নয় , সব চেয়ে বড় কথা হচ্ছে একটি জনগোষ্ঠিকে একটি জাতিকে নিশ্চিহ্ন করার অশুভ অভিপ্রায়ে এই হত্যা কান্ড চালানো হয়েছে। ইয়াইয়া খান নিজেও মানুষ নয় , মাটি চেয়েছিলেন। এ্ সব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ২৫শে মার্চকে গণহত্যা দিবস ঘোষণা যথার্থ বলে মনে করছেন বাংলাদেশের মানুষ। এই গণহত্যা দিবসের তাৎপর্য এবং একে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি প্রদানে জন্য বাংলাদেশের প্রচেষ্টা এ সব কিছুই হচ্ছে আজকের আলোচ্য বিষয় ।

আমাদের এই কল ইন শোতে আজকের অতিথি উইসকন্সিন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসার এমিরেটাস , রোজবুশ অধ্যাপক জিল্লুর রহমান খান । আরো আছেন বাংলাদেশের মুক্তি যুদ্ধে শহীদ চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা আলিম চৌধুরীর কন্যা , বঙ্গবন্ধু পোস্ট গ্রাজুয়েট মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের চক্ষু বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা নুজহাত চৌধুরী ।

please wait

No media source currently available

0:00 0:44:19 0:00

XS
SM
MD
LG