অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সার্গেই লাভরফ আজ বলেছেন যে রাশিয়ার উদ্যোগে আগামি মাসে সোচিতে যে শান্তি আলোচনা হবার কথা সে সম্পর্কে সিরিয়ার জনগণের মধ্যে ব্যাপক সমর্থন রয়েছে এবং এর লক্ষ্য হচ্ছে জাতিসংঘের উদ্যোগে আয়োজিত শান্তি প্রক্রিয়ার ক্ষেত্র প্রস্তুত করা।

লাভরফের এই মন্তব্যের ঠিক আগে সিরিয়ার চল্লিশটি বিদ্রোহী গোষ্ঠি বলছে যে রাশিয়া জাতিসংঘের শান্তি প্রক্রিয়াকে পাশ কাটিয়ে যাচ্ছে এবং তাই তারা আগামি মাসে সোচিতে রাশিয়া আয়োজিত শান্তি আলোচনায় যোগ দেবে না।

বিদ্রোহীরা বলছে যে রাশিয়া সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদকে সরানোর ব্যাপারে তাদের দাবি মানছে না। মঙ্গলবার বিদ্রোহীদের এক বিবৃতিতে বলা হয়, আমরা এটি প্রত্যাখ্যান করছি এবং আমরা এটা জোরের সঙ্গেই বলছি যে রাশিয়া আগ্রাসী রাষ্ট্র। তারা সিরিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধ করেছে। ঐ বিবৃতিতে আরও বলা হয় যে রাশিয়া এমন একটি পদক্ষেপও নেয়নি যা সিরিয়ার জনগণকে যন্ত্রনা থেকে মুক্ত করতো এবং তারা সিরিয়া সরকারকে কোন রকম চাপ দেয়নি এবং শান্তির দিকে এক ইঞ্চি ও এগিয়ে যায়নি। বিদ্রোহীরা আরও বলছে যে মধ্যস্থতাকারীকে নিরপেক্ষ হতে হবে কিন্তু দেখা গেল রাশিয়া হচ্ছে সিরিয়ার সব চেয়ে শক্তিশালি মিত্র। ২৯শে জানুয়ারি কৃষ্ণ সাগরের এই আলোচনা হবার কথা।

সিরিয়ার সরকার বলেছে তারা এই আলোচনায় যোগ দেবে। বিরোধীদের সমর্থক তুরস্ক ও এই আলোচনায় যোগ দেবে তবে বলছে কুর্দি দলগুলোকে আমন্ত্রণ জানানো উচিৎ হবে না।

XS
SM
MD
LG