অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ফ্রান্সের বিয়ারিটজে চলছে বিশ্বের শিল্পোন্নত দেশগুলোর সম্মেলন জি-সেভেন


ফ্রান্সের বিয়ারিটজে চলছে বিশ্বের বড় শিল্পোন্নত দেশগুলোর নেতাদের বার্ষিক শীর্ষ সম্মেলন জি-সেভেন।

ফ্রান্সের বিয়ারিটজে চলছে বিশ্বের বড় শিল্পোন্নত দেশগুলোর নেতাদের বার্ষিক শীর্ষ সম্মেলন জি-সেভেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের, স্বাগতিক দেশ ফ্রান্সের অন্যতম প্রধান আইকনিক শিল্প মদের ওপর শুল্ক আরোপের হুমকীর মধ্যে দিয়ে চলমান সম্মেলনে এ নিয়ে কিছুটা উত্তেজনা রয়েছে। এবারকার জি-সেভেনের বিষয়বস্তু হিসাবে রয়েছে জলবায়ু পরিবর্তন, চীন ও ইরানের আচরণ, রাশিয়াকে ফিরিয়ে আনা না আনা এবং উইরোপীয়ন ইউনিয়ন থেকে বৃটেনের বেরিয়ে যাওয়া সহ নানা বিষয়।

রবিবার সম্মেলনের প্রথম সভায় ২০২০ সালে এই দলে রাশিয়াকে পুনরায় আনার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে ব্যর্থ হয়েছেন নেতৃবৃন্দ। ২০১৪ সালে রাশিয়াকে বাদ দেয়া হয় ইউক্রেনের ক্রাইমিয়া দখলের কারনে।

প্রথম সভার পর ফ্রান্স ঘোষণা করেছে যে বিশ্ব অর্থনীতি, পররাষ্ট্র নীতি ও নিরাপত্তা বিষয় নিয়ে জ-৭ নেতারা একমত হয়েছেন যে ফরাসী প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ইরানের কাছে আলোচনায় বসার বার্তা পাঠাবেন। তবে প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন ঐ বার্তা পাঠানো বা ইরানের সঙ্গে আলোচনায় তিনি অংশ নেননি। তবে তিনি আরো বলেছেন তিনি ইরানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে কাউকে তিনি বাধা দেবেন না।

ইউরোপীয়ন কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড টাস্ক বলেছেন আমাদের সব বিষয়ে একমত হওয়াটা সহজ নয়।

ফরাসী প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ঘোষণা দিয়েছেন যে অনেক বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও অন্যাণ্য নেতাদের মতবিরোধ থাকায় জি-৭ শেষে কোনো যৌথ প্রজ্ঞাপন হবে না। আর তা হলে এবারই হবে জি-৭ এর ইতিহাসে যৌথ প্রজ্ঞাপন ছাড়া প্রথম সম্মেলন।

XS
SM
MD
LG