অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ক্যাম্বোডিয়ার হুন সেন মিয়ানমারের সামরিক নেতাদের সঙ্গে দেখা করবেন 


ফাইল ফটোঃ ২২ নভেম্বর, কম্বোডিয়ার আন খুন স্যাম আউন ন্যাশনাল টেলিভিশনের দেওয়া ছবি। ক্যাম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী হুন সেন কম্বোডিয়ার নম পেনের পিস প্যালেস থেকে অনলাইনে আসিয়ান-চীন বিশেষ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেন

ক্যাম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী হুন সেন মিয়ানমার সফর করছেন। তিনি বলেছেন, ১লা ফেব্রুয়ারী সামরিক বাহিনীর ক্ষমতা দখলের পর শান্তি ফিরিয়ে আনতেই তাঁর এই সফর তবে সমালোচকরা বলছেন যে এতে সেনাবাহিনীর ক্ষমতা দখলকেই বৈধতা দেওয়া হবে।

হুন সেনের সরকারি ফেইসবুক পাতায় লাইভ ভিডিওতে দেখা গেছে যে শুক্রবার ভোরে মিয়ানমারের রাজধানী নেপিটোতে পৌঁছানোর পর মিয়ানমারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা তাকে স্বাগত জানিয়েছেন। মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় প্রচার মাধ্যমও তার আগমন বার্তা সম্প্রচার করেছে।

হুন সেন নিজেই একজন কর্তৃত্ববাদী নেতা যিনি ৩৬ বছর ধরে ক্ষমতা ধরে রেখেছেন এবং কম্বোডিয়ার রাজনৈতিক কার্যকলাপের উপর কঠোর ভাবে নিজের নিয়ন্ত্রণ রেখেছেন। তিনিই প্রথম রাষ্ট্রপ্রধান যিনি সামরিক অভ্যুত্থানে অং সান সুচির নির্বাচিত সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার মায়ানমার সফর করেছেন।

ক্যাম্বোডিয়া দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর অ্যাসোসিয়েশন আসিয়ানের পর্যায়ক্রমিক চেয়ার পদটি ধারণ করে আছে । গত বছর আসিয়ান অনুমোদিত মিয়ানমারের জন্য পাঁচ দফা শান্তি পরিকল্পনা তুলে ধরার জন্য মিয়ানমারের নেতা সিনিয়র জেনারেল মিন অং লাইংয়ের সাথে হুন সেনের সাক্ষাতের এই পরিকল্পনা ।

হুন সেন বুধবার নম পেন-এ বলেন যে তিনি তার সফরের আগে কোন পূর্ব শর্ত নির্ধারণ করেননি।

বুধবার দিনের শেষে তিনি বলেন, "আমি আলোচনায় যা আনতে চাই তা আসিয়ানের সকল সদস্য রাষ্ট্র সম্মত পাঁচটি পয়েন্ট---ঐকমত্যের বিষয় ছাড়া আর কিছুই নয়।"

ঐ প্রস্তাবে সামরিক ক্ষমতা দখলের পর যে সহিংসতা হয়েছে তা বন্ধ করা, বিরোধী দলের সাথে শান্তিপূর্ণ নিষ্পত্তি নিয়ে আলোচনা করা এবং আসিয়ানের বিশেষ দূতকে বিবদমান সকল পক্ষের সাথে সাক্ষাত ও মধ্যস্থতার করার অনুমতি দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে ।

গত এপ্রিল মাসে মিন অং লাইংসহ আসিয়ান নেতারা ঐ বিষয়গুলোতে একমত হন। অং সান সুচি এবং অন্যান্য রাজনৈতিক বন্দীদের সাথে আসিয়ানের তৎকালীন বিশেষ দূতকে বৈঠক করতে বাধা দেওয়ার পর অক্টোবর মাসে মিয়ানমারের নেতার আসিয়ান বৈঠকে যোগদান নিষেধ করা হয়।

XS
SM
MD
LG