অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ইরাকে ২০১৪ সালে নিখোঁজ ভারতীয়দের দেহাবশেষ দেশে ফিরল


ইরাকে ২০১৪ সালে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া ভারতী ঊনচল্লিশ জনেরমধ্যে আটত্রিশ জনের দেহাবশেষ ফিরল দেশে। আজ সোমবার পাঞ্জাবের অমৃতসর আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে. বিশেষ বিমানে করে ইরাকে নিহত আটত্রিশ জনের দেহাবশেষ নিয়ে আসা হয়। ভারতীয় সময় দুপুর আড়াইটে নাগাদ বিমানটি ভারতে অবতরণ করে।

বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন নিহতদের আত্মীয়স্বজনরা। প্রসঙ্গত বলা যেতে পারে দেহাবশেষ ফিরিয়ে আনতে গতকালই বাগদাদের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়ে ছিলেন বিদেশ প্রতিমন্ত্রী ভি কে সিংহ এবং দেহাবশেষসহ একই বিমানে ফেরেন তিনি। অমৃত সরে পৌঁছেই সাংবাদিকদের তিনি জানান গত চার বছর আগে ইরাকে আইএস হামলায় মৃতদের একজনের ডিএনএ না মেলায়, আটত্রিশ জনের দেহ আজ ভারতে ফিরেছে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সমস্ত ধরনের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ভারতের লড়াই চলবে।

please wait
Embed

No media source currently available

0:00 0:01:02 0:00

আইএসআইএস অত্যন্ত নির্মম জঙ্গি সংগঠন, এই ভারতীয় নাগরিকরা তাদের শিকার হয়েছেন। এর পরই কফিন বন্দী দেহগুলি মিলিটারি স্যালুট করে শ্রদ্ধা জানান প্রাক্তন সেনা প্রধান ভি কে সিংহ। উল্লেখ করা যেতে পারে দেশে ফিরে আসা আটত্রিশটি দেহরমধ্যে রয়েছেন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের দুই বাসিন্দা নদীয়ার চাপড়া থানার সমর টিকাদার ও তেহট্টের ইলশেমারি গ্রামের বাসিন্দা খোকন শিকদার।

ইরাকে আইএস হামলায় নিহত ভারতীয়দের দেহ নিয়ে প্রথমে অমৃতসর পৌঁছয় বিমান। নিহতদের মধ্যে সাতাশ জন পঞ্জাবের ও চার জন হিমাচল প্রদেশের বাসিন্দা। এরপর সন্ধেয় কলকাতায় পৌঁছয় বিমান।সেখানে রাজ্যের দুই বাসিন্দার দেহ নামিয়ে বিমান রওনা দেয় পাটনার উদ্দেশে।

চার বছর আগে ইরাকের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মসুল থেকে নিখোঁজ হয়ে যান চল্লিশ জন ভারতীয়। একজন কোনওক্রমে ফিরে আসেন। তিনি বারবার দাবি করেন, তাঁর চোখের সামনেই বাকি ঊনচল্লিশ জনকে ঠান্ডা মাথায় খুন করেছে আইএস। অবশেষে গত মাসে বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ সংসদে দাঁড়িয়ে স্বীকার করে নেন, গণকবর থেকে দেহাবশেষ উদ্ধার হয়েছে তাঁদের। যদিও একজনের ডিএনএ-র মিল পুরোপুরি না পাওয়ায় তাঁর দেহ এবার ফিরিয়ে আনা সম্ভব হল না।

XS
SM
MD
LG