অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ৫১০০ কোটি ডলার নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ সরকার


চট্টগ্রাম বন্দরের আমদানি ও রপ্তানি কার্যক্রম
চট্টগ্রাম বন্দরের আমদানি ও রপ্তানি কার্যক্রম

চলতি ২০২১-২০২২ অর্থবছরের জন্য বাংলাদেশ সরকার রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ৫১০০ কোটি অ্যামেরিকান ডলার নির্ধারণ করেছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সি মঙ্গলবার এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা ঘোষণা করে বলেন এই লক্ষ্যমাত্রা গত ২০২০-২১ অর্থবছরের চেয়ে ১২.৩৭ শতাংশ বেশি। গত অর্থ বছরে রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা ৪১০০ কোটি ডলার নির্ধারণ করা হলেও করোনা মহামারির কারনে দেশের রপ্তানি আয় হয়েছে ৩৮৭৫ কোটি ডলার। টিপু মুন্সি বলেন করোনা মহামারির মধ্যে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রপ্তানি মুখি শিল্প কারখানার মালিক ও শ্রমিকরা বিভিন্ন বাধা বিপত্তি সত্ত্বেও সাহসিকতার সাথে কাজ করে যাওয়ায় গত বছর রপ্তানিতে এই অর্জন সম্ভব হয়েছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি
বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি

তিনি আশা প্রকাশ করেছেন এই বছরের জন্য যে রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হয়েছে তার মধ্যে ৪৩৫০ কোটি ডলারের পণ্য এবং সেবা খাতে ৭৫০ কোটি ডলার রপ্তানি করা সম্ভব হবে। তিনি বলেন রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণের সময় করোনাকালে দেশের এবং আন্তর্জাতিক সকল বিষয় বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। তবে তিনি আশংকা প্রকাশ করেছেন যে শুরু হওয়া করোনা ভাইরাস সংক্রমণ দীর্ঘায়িত হওয়ার ফলে পণ্য উৎপাদন এবং বিপণনে যে অভিঘাত সৃষ্টি হচ্ছে তার ফলে দেশের অর্থনীতিতে মধ্য মেয়াদি ও দীর্ঘ মেয়াদী অর্থনৈতিক সংকট সৃষ্টি হতে পারে।

ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিদের বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা রপ্তানি খাতকে চাংগা করার জন্য শুল্ক বহির্ভূত যে সকল বাধা বিপত্তি ও বন্দরে সরকারের বিভিন্ন সংস্থার হয়রানির মত যেসকল বিষয়গুলো রয়েছে সেগুলো দূর করার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন।

XS
SM
MD
LG