অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভূমধ্যসাগরে বাংলাদেশের অভিবাসন প্রত্যাশীদের প্রাণহানি: বিশ্লেষকদের মন্তব্য


অবৈধ অভিবাসীরা নৌকায় করে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিচ্ছে ইউরোপে যাবার জন্য।

কর্মসংস্থানের জন্য অবৈধ ভাবে বিদেশে পাড়ি জমাতে গিয়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে বাংলাদেশিরা যেভাবে প্রাণ হারাচ্ছেন তা বন্ধ করতে হলে নিরাপদ অভিবাসনের কোন বিকল্প নাই বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

লিবিয়া থেকে ভূমধ্যসাগরে পাড়ি দিয়ে ইউরোপে যাওয়ার পথে বুধবার নৌকাডুবিতে বাংলাদেশের অন্তত ১৭ জন অভিবাসন প্রত্যাশী মানুষ নিহত হওয়ার খবর বৃহস্পতিবার দেশে পৌঁছালে এ ধরনের ঘটনা বার বার কি ভাবে ঘটে চলেছে ও কারা এ সকল অকাল মৃত্যুর জন্য দায়ী তা নিয়ে জনমনে বিভিন্ন প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। তিউনিসিয়ার উপকুল রক্ষীরা জানিয়েছে ভূমধ্যসাগরে ডুবে যাওয়া নৌকাটি থেকে তারা বাংলাদেশের এই ১৭ জন নাগরিকের মরদেহ এবং বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের ৩৮০ জনের বেশি অভিবাসীকে জীবিত উদ্ধার করেছে। জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে ভূমধ্যসাগরে নৌকা ডুবে যে ৪৩ জন অভিবাসী নিহত হয়েছিলেন তার বেশির ভাগই বাংলাদেশের নাগরিক ছিলেন বলে জানিয়েছিল তিউনিসিয়ার রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি। এছাড়াও লিবিয়া ও তিউনিসিয়ার উপকুল রক্ষীরা জুন মাসে এবং জুলাই মাসের এ পর্যন্ত ভূমধ্যসাগরে ডুবে যাওয়া বিভিন্ন নৌকা থেকে অন্যান্য দেশের নাগরিকদের সাথে ৮০০ শতাধিক বাংলাদেশিকে উদ্ধার করেছেন।

বিশ্লেষকরা বলছেন ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপে যাওয়ার পথে বাংলাদেশের অভিবাসন প্রত্যাশি মানুষের প্রাণহানির ঘটনা এটাই প্রথম নয়। এ ধরনের দুর্ভাগ্য জনক ঘটনা রোধে কর্তৃপক্ষের কঠোর পদক্ষেপ নেয়া জরুরী হয়ে পড়েছে। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাকের অভিবাসন বিষয়ক কর্মসূচীর প্রধান শারিফুল হাসানের কাছে বিদেশেগামি অবৈধ অভিবাসন প্রত্যাশীদের ঠেকানোর বিষয়ে করনীয় সম্পর্কে ভয়েস অফ আমেরিকার তরফে জানতে চাইলে তিনি বলেন জনসচেতনতা বাড়ানোর পাশাপাশি মানব পাচারকারী চক্র সমূহকে শক্ত হাতে দমন করা গেলে এবং নিরাপদ অভিবাসনে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করা গেলে অবৈধ অভিবাসন রোধ করা অনেকটাই সম্ভব।

তিনি বলেন কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে উত্তর আফ্রিকা এবং আরও কয়েকটি রুট দিয়ে দিয়ে বাংলাদেশীদের ইউরোপে যাওয়ার ঘটনা নতুন কোন বিষয় নয়। গত ৬-৭ বছর যাবত ইউরোপে পৌঁছানো অভিবাসীদের তালিকায় বাংলাদেশের মানুষের স্থান প্রথম দশের মধ্যে থাকলেও ২০২১ সালের প্রথম ৬ মাসে তা প্রথম স্থানে উঠে এসেছে বলে তিনি উল্লেখ করেন । তিনি বলেন এই ছয় মাসে এ দেশের ৩৩৩২ জন অবৈধ ভাবে ইউরোপে পৌঁছানোর পর গ্রেফতার হয়েছেন বা চিহ্নিত হয়েছেন। শারিফুল হাসান বলেন যেটা লক্ষণীয় তা হচ্ছে বাংলাদেশের মানুষ

ছাড়াও যারা ইউরোপ পাড়ি দিচ্ছেন তাদের মধ্যে রয়েছে সুদান, তিউনেসিয়া, ইরিত্রিয়া, মালি, সিরিয়া, আফগানিস্তান ও আফ্রিকার যুদ্ধ বিধ্বস্ত কিছু দেশ এবং যে সকল দেশে দুর্ভিক্ষ ও দারিদ্র চলছে সে সকল দেশের নাগরিকরা। বাংলাদেশ যখন মধ্যম আয়ের দেশের কাতারে সামিল হতে যাচ্ছে তখন এ ধরণের পরিস্থিতি বাংলাদেশের ভাবমূর্তির জন্য কখনোই সুখকর নয় বলে তিনি মন্তব্য করেন।

XS
SM
MD
LG