অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ


বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের ছয় বিচারপতির বেঞ্চ এ আদেশ দেয়। সম্মতি দিলে মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসা দিতে বলা হয়েছে আদালতের আদেশে।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের এই মামলায় হাইকোর্ট জামিন আবেদন খারিজ করলে আপিল বিভাগে জামিন চান বিএনপি চেয়ারপারসন। মূলত মেডিকেল গ্রাউন্ডে তার জামিন চাওয়া হয়। গত ৫ই ডিসেম্বর এ আবেদনের শুনানিকে কেন্দ্র করে প্রধান বিচারপতির আদালতে ব্যাপক হট্টগোল হয়। খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে রাজনীতিতে তৈরি হয় উত্তেজনা। সরকারি দল ও বিএনপি নেতারা এ নিয়ে বিতর্কে জড়ান।

বৃহস্পতিবার সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর জামিন আবেদনের শুনানিকে কেন্দ্র করে পুরো সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় নেয়া হয় কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা। আইডি কার্ড না দেখে কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। প্রধান বিচারপতির এজলাসে প্রবেশেও আরোপ করা হয় কড়াকড়ি। খালেদা জিয়ার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন দিনের শুরুতে এ ব্যাপারে প্রধান বিচারপতির দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এ সময় প্রধান বিচারপতি বলেন, তাহলে উভয়পক্ষ থেকে ৩০ জন করে আইনজীবী থাকুক। শুনানির শুরুতে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে মেডিকেল বোর্ডের রিপোর্ট আদালতে দাখিল করা হয়। খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানিতে অংশ নিয়ে জয়নুল আবেদীন বলেন, দু’টি মেডিকেল রিপোর্ট দাখিলের নির্দেশ দেয়া হলেও একটি মেডিকেল রিপোর্ট দাখিল করা হয়েছে। খালেদা জিয়া অসুস্থ। তার উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন। আমরা সম্পূর্ণ মানবিক কারণে খালেদা জিয়ার জামিন চাই।

অন্যদিকে, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, খালেদা জিয়ার যেসব অসুস্থতার কথা বলা হয়েছে এসব অসুস্থায় তিনি অনেকদিন ধরেই ভুগছেন। তাকে ভ্যাকসিন নেয়ার পরামর্শ দিয়েছে মেডিকেল বোর্ড। কিন্তু তিনি তা নিতে সম্মতি জানাননি।

উল্লেখ্য, ২২ মাস ধরে কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়া বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধানী। ৩৭টি মামলার মধ্যে ৩৫টিতে জামিনে রয়েছেন তিনি।

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:09 0:00
সরাসরি লিংক



XS
SM
MD
LG