অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি: ঢাকা মেডিকেলেই মৃত্যু ১০৩ জনের


বাংলাদেশে সাধারণ ছুটি শিথিল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে একধরণের বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। যদিও অনেকগুলো শর্ত দেয়া হয়েছিল। বলা হয়েছিল শর্ত না মানলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। দৃশ্যত এর কোন আলামত নেই। পুলিশ বা অন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারি অনুপস্থিত। সামাজিক দুরত্ব অনেকটা অদৃশ্য হয়ে গেছে। মাস্ক ছাড়াই অবাধে ঘুরে বেড়াচ্ছে হাজারো মানুষ। বড় শপিং মল ছাড়া বেশিরভাগ দোকান-পাট খুলেছে। ঈদের কেনাকাটার জন্য সকাল থেকেই মানুষের ভিড়। আর এই সুযোগ নিচ্ছে করোনা ভাইরাস। বিস্তৃতি ঘটছে লাগামহীন ভাবে। প্রতিদিনই সংক্রমণের হার বাড়ছে। লম্বা হচ্ছে মৃত্যুর কাফেলা। কেবলমাত্র ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেই করোনা ইউনিটে গত ১০ দিনে ১০৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২রা মে এই হাসপাতালে করোনা ইউনিট চালু করা হয়। এই দশ দিনে ৬১০ জন রোগী ভর্তি হন।

এই হাসপাতালে কেন এত রোগীর মৃত্যু হচ্ছে জানতে চাইলে হাসপাতালের উপ-পরিচালক আলাউদ্দিন আল আজাদ বলেছেন, রাজধানীর অন্যান্য হাসপাতালে সেবা বঞ্চিত হওয়া রোগীদের এখানে ভর্তি করা হচ্ছে। এখানে সন্দেহজনক বা পজিটিভ দুই ধরণের রোগী ভর্তির সুযোগ পাচ্ছেন। অন্য হাসপাতালে এই সুযোগ নেই। এ কারণে মৃত্যুর হার এই হাসপাতালে বেশি বলে মনে হচ্ছে।

গত ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯৬৯ জন। মারা গেছেন ১১ জন। সর্বমোট আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ হাজার ৬৬০ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৫০ জনের।

যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের জন্য গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল লকডাউন করা হয়েছে। এই ট্রাইব্যুনালের নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত ২২ জন সদস্য করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুম এটা নিশ্চিত করেছেন।

সিলেট কারাগারের একজন বন্দি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:56 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG