অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

করোনা ভাইরাসের কারনে বাংলাদেশের হজ যাত্রীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে দ্বিধাদ্বন্দ্ব


বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় ২০২০ সালের ৩০ শে জুলাই অনুষ্ঠিতব্য পবিত্র হজ পালনের জন্য বাংলাদেশের হজ যাত্রীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে দ্বিধাদ্বন্দ্ব।

হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশান অব বাংলাদেশ বা হাব এ তথ্য জানিয়ে বলেছে নিবন্ধন প্রক্রিয়ার মেয়াদ ২৫ মার্চ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও এবার হজে যাওয়ার জন্য তেমন সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না। হাব আরো জানিয়েছে, সৌদি সরকার এবছর বাংলাদেশের জন্য এক লাখ ৩৭ হাজার জনের কোটা নির্ধারণ করলেও আজ পর্যন্ত হজে যাওয়ার জন্য নিবন্ধিত হয়েছেন মাত্র ২১ হাজার জন। ২০১৯ সালে সারা বিশ্ব থেকে পবিত্র হজ পালন করতে গিয়েছিলেন ২৫ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসলিম, যার মধ্যে বাংলাদেশ থেকে গিয়েছিলেন এক লাখ ২৭ হাজার জন।

ধর্ম মন্ত্রণালয় এবং হাবের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নিবন্ধন করা হজ যাত্রীরা যদি হজে যেতে না পারেন তাহলে তাঁরা চাইলে টাকা তুলে নিতে কিংবা না তুলে আগামী বছর অথবা তার পরের বছর হজে পালন করতে পারবেন। কর্মকর্তারা জানান, হজ যাত্রা নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকলেও হজের সব প্রক্রিয়া চালু রাখা হবে। করোনা ভাইরাসের শঙ্কার মধ্যে এ বছরের হজের বিষয়ে ভয়েস অব আমেরিকার সাথে কথা বলেছেন হাব এর সভাপতি এম শাহাদাত হসেন তসলিম।

হজ সংশ্লিষ্টরা বলছেন, হজের নিবন্ধনের ধীরগতির কারনে প্রভাব পড়তে পারে এ বছরের পুরো হজ কার্যক্রম ব্যবস্থার ওপর।

ঢাকা থেকে জহুরুল আলমের রিপোর্ট।

XS
SM
MD
LG