অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ঢাকার ১৩টি এলাকা এখন রেড জোনে


বাংলাদেশে করোনা দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। একের পর এক এলাকা সংক্রমিত হচ্ছে। এর মধ্যে রাজধানী ঢাকার অবস্থা দিন দিন অবনতির দিকে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে ১৩টি এলাকাকে ‘রেড জোন’ হিসেবে ঘোষণা করেছে আইইডিসিআর। তারা বলছে, এসব এলাকায় ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা। স্বাস্থ্য দপ্তরের অনলাইন বুলেটিনে ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, ঢাকার রাজারবাগ, যাত্রাবাড়ী, লালবাগ, মোহাম্মদপুর, বংশাল, মিটফোর্ড, তেজগাঁও, মিরপুর, ওয়ারী, শাহবাগ, কাকরাইল ও উত্তরায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সাত জন মারা গেছেন। আক্রান্ত হয়েছেন ৪৯৭ জন। মোট আক্রান্ত ৫ হাজার ৯১৩ জন। মারা গেছেন ১৫২ জন। ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, সারাদেশের ৬৪ জেলার সকল উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের জন্য ৬০১টি প্রতিষ্ঠানকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় হটলাইনে ফোন এসেছে ৭৮ হাজার ১২৭টি। সবমিলিয়ে এ পর্যন্ত ৩৪ লাখ ৬৯ হাজার ৩৮৯টি ফোন এসেছে।

ওদিকে, লকডাউনের মধ্যে দ্বিতীয় দিনের মত গাজীপুরে পোশাক শ্রমিকরা রাজপথ অবরোধ করে। বকেয়া বেতনের দাবিতে এবং করোনার এই সংকটে কারখানা খোলা রেখে রাত ১১টা পর্যন্ত কাজ করার প্রতিবাদে শ্রমিকরা এই অবরোধ করে। এ সময় গাড়ি ভাঙচুর এবং অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটে।

গণস্বাস্থ্যের কিট গ্রহণ করেনি ওষুধ প্রশাসন। তাদের মতে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ‘র‍্যাপিড কিট’ সমর্থন করে না। গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ২৫০ টাকায় না কিনে ৫০০ টাকার কিট কেনা হচ্ছে বিদেশ থেকে। গত রোববার গণস্বাস্থ্যের তরফে ওষুধ প্রসাশনের কাছে কিট হস্তান্তর করা হয়।

ভারতে আটকা পড়া বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনা হচ্ছে। এর আগে ৯৯৬ জনকে ফিরিয়ে আনা হয়। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে ১৬টি আন্তর্জাতিকসহ দেশের অভ্যন্তরীণ সব রুটে ফ্লাইট চলাচলের সময়সীমা ফের বাড়ানো হয়েছে। নতুন সময় অনুযায়ী আগামী ৭ই মে পর্যন্ত ফ্লাইট চলাচল বন্ধ থাকবে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:49 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG