অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

চট্টগ্রামে ২৪ ঘন্টায় র‌্যাব-পুলিশ-চিকিৎসকসহ করোনা আক্রান্ত ১২ জন


বাংলাদেশের চট্টগ্রামে একদিনেই র‌্যাব-পুলিশ এবং চিকিৎসকসহ ১২জনের শরীরে কোভিড-১৯ পজেটিভ পাওয়া গেছে। চট্টগ্রামের ফৌজদারহাট বিআইডিআইটি ল্যাবে একশো জনের নমুনা পরীক্ষার পর এই ১২ জনের শরীরে কোভিড-১৯ পজেটিভ পাওয়া যায়। এর মধ্যে নগরীর পতেঙ্গা,আগ্রাবাদ, হালিশহর, দামপাড়া, পাহাড়তলীর, ভাটিয়ারি, পাঁচলাইশ এলাকা একজন করে বাসিন্দা আছেন। এছাড়া মহানগরীর বাইরে মিরসরাই এবং বোয়ালখালীতে আছেন দুই জন।

আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত ট্রাফিক বিভাগে কর্মরত ৮জন কনেষ্টবলের শরীরে কোভিড-১৯ পজেটিভ পাওয়া গেছে। দামপাড়া পুলিশ লাইনের একটি ব্যারেকে ৩০০ কনষ্টেবল থাকতেন। কোভিড-১৯ পজেটিভ আসার পর ঐ ব্যারেকে থাকা কনষ্টেবলদেনর অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে নগর পুলিশ প্রশাসন।

নগরীর পতেঙ্গায় শনাক্ত ব্যক্তি র‌্যাব-৭ ব্যাটেলিয়নের সদস্য বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা। সহকারী উপপরিদর্শক পদমর্যাদার এই কর্মকর্তা কাশি ও শ্বাসকষ্ট থাকায় একসপ্তাহ আগে তাকে কোয়ারেনটাইনে রাখা হয়। এছাড়া চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সহকারী এক অধ্যাপকের শরীরেও কোভিড-১৯ পজেটিভ পাওয়া গেছে।।

গত ২৬ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত চট্টগ্রামে ২ হাজার ৬৪২ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এদের মধ্যে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ১০৪ জনের। মারা গেছেন ৫ জন।

এদিকে টানা লকডাউন পরিস্থিতিতে নিত্যপণ্যের বাজারে মুজদদারী ঠেকাতে অভিযান অব্যাহত রেখেছে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে সেনাবাহিনীসহ আইন শৃংখলা বাহিনী। দিনভর তারা চট্টগ্রামের ভোগ্য পণ্যেও পাইকারী ব্যবসাকেন্দ্র খাতুনগঞ্জে অভিযান চালিয়ে বিভিন্নজনকে জরিমানা করেছেন বলে জানিয়েছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা ক্যপ্টেন কাউফিউন নাহার।

এদিকে এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় প্রতিপক্ষের গুলিতে দুইজন নিহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে একজন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএ)এর প্রসিত খীসা গ্রুপের সদস্য বলে দাবি করা হয়েছে। সকাল ৯টার দিকে বানছড়ি প্রেসবাজারে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহতদের লাশ উদ্ধার করার কথা জানিয়েছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আইন শৃংখলা বাহিনীর অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:03:04 0:00


XS
SM
MD
LG