অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে করোনা আক্রান্ত ২১৪৪ জন


বাংলাদেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দুই হাজার ছাড়িয়েছে। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী আক্রান্তের সংখ্যা এখন ২ হাজার ১৪৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৯ জন। এ নিয়ে মারা গেলেন ৮৪ জন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত বুলেটিনে শনিবার এই তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। বলা হয়েছে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩০৬ জন শনাক্ত হয়েছেন। মারা যাওয়া ৯ জনের মধ্যে ৬ জন ঢাকার। ২ জন নারায়ণগঞ্জের এবং ১ জন সাভারে মারা গেছেন।

গত ৮ই মার্চ প্রথম করোনা রোগীর সন্ধান মেলে বাংলাদেশে। ১৮ই মার্চ প্রথম একজন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়। এরপর থেকে মৃত্যুর কাফেলা লম্বা হচ্ছে। স্বাস্থ্যকর্মীরা বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন। প্রায় একশো চিকিৎসক ইতোমধ্যেই আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডাঃ মঈন উদ্দিন মারা গেছেন।

চিকিৎসকদের সংগঠন বাংলাদেশ ডক্টরস ফাউন্ডেশন এই তথ্য জানিয়েছে। ফাউন্ডেশনের প্রধান প্রশাসক নিরুপম দাশ বলেছেন, উদ্বেগের ব্যাপার হচ্ছে সংক্রমিত ডাক্তারের সংখ্যা একশোতে পৌঁছে গেছে। তার আশঙ্কা, এই সংখ্যা যদি এভাবে বাড়তে থাকে তাহলে একসময় চিকিৎসক সংকট হয়ে যেতে পারে। নার্স আক্রান্ত হয়েছেন ৫৭ জন, কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ২৭০ জন। করোনায় পুলিশের ৫৮ সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন। কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা হয়েছে ৬৩৩ জনকে। সৌদি আরবে কর্মরত একজন বাংলাদেশি কূটনীতিক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

লকডাউন উপেক্ষা করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাওলানা জুবায়ের আহমদ আনসারীর জানাজায় হাজার হাজার মানুষ শরিক হয়েছেন। আনসারী বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমীর ছিলেন।

করোনা বাংলাদেশে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় গার্মেন্টস শ্রমিকসহ দরিদ্র জনগোষ্ঠী সবচেয়ে বেশি মানসিক চাপের মধ্যে রয়েছেন। এছাড়া সামনের সারিতে থাকা স্বাস্থ্যকর্মীরাও রয়েছেন ঝুঁকিতে। ব্র্যাকের এক জরিপ রিপোর্টে এই তথ্য বেরিয়ে এসেছে।

ওদিকে ঢাকায় অবস্থানরত ব্রিটিশ নাগরিকদের ফিরিয়ে নিতে ৪টি বিশেষ ফ্লাইট আসছে। ব্রিটিশ হাই কমিশনার রবার্ট ডিকসন এক ভিডিও বার্তায় জানান, প্রথম ফ্লাইটটি আসবে ২১শে এপ্রিল। এর আগে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, রাশিয়া, ভুটান, ও জার্মানিসহ ২ হাজার ৬৫৮ জন বিদেশী নাগরিক ঢাকা ছেড়ে চলে গেছেন।

XS
SM
MD
LG