অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নিজামী প্রাণভিক্ষার আবেদন না করলে যে কোনো সময় ফাঁসির দন্ড কার্যকর হবে


বাংলাদেশে ১৯৭১-এর যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদন্ডাদেশ প্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর আমীর মওলানা মতিউর রহমান নিজামীর দন্ড কার্যকরের সব আইনি প্রক্রিয়া প্রায় সম্পন্ন হয়েছে। জেল কর্তৃপক্ষের কাছে সন্ধ্যা ৭টায় রিভিউ আবেদন খারিজের রায়ের কপি পৌঁছে গেছে। এখন কর্তৃপক্ষ তার কাছে জানতে চাইবেন তিনি প্রেসিডেন্টের কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদন করবেন কি না ?

অ্যার্টনি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, যদি তিনি প্রাণভিক্ষার আবেদন না করেন তবে যে কোনো সময় ফাঁসির দন্ড কার্যকর হবে। তবে দন্ড কার্যকরের আগে জনাব নিজামীর স্বজনেরা তার সাথে সাক্ষাতের সুযোগ পাবেন।

মৃত্যুদন্ডাদেশের ব্যাপারে মওলানা নিজামীর করা রিভিউ আবেদন খারিজের পূর্ণাঙ্গ রায় আপিল বিভাগ সোমবার অপরাহেৃ প্রকাশ করে এবং পরে তা যুদ্ধাপরাধ বিচার ট্রাইব্যুনালে পৌঁছে দেয়া হয়। এই রায়ের কপি ট্রাইব্যুনালের বিচারকদের স্বাক্ষর শেষে সন্ধ্যা ৭টায় জেল কর্তৃপক্ষের হাতে পৌঁছেছে।

রোববার রাত ১২টার দিকে মওলানা নিজামীকে কাশিমপুর কারাগার থেকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর করা হয়।
উল্লেখ্য এর আগে তিনজন জামায়াতের এবং একজন বিএনপি'র ঊর্ধ্বতন নেতার ফাঁসি কার্যকর হয়েছে। ঢাকা থেকে আমীর খসরু।

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:01 0:00




XS
SM
MD
LG