অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশের মানুষ বলছেন এমন ঈদুল আযহা তারা জীবনে দেখেননি


করোনা সংক্রমণের ভীতি আর বানভাসি মানুষের বন্যার পানির সাথে লড়াইয়ের মধ্যে বাংলাদেশের মানুষ ঈদুল আযহার দিনটি কাটিয়েছেন। এ যেন এক ভিন্ন সময়ের ভিন্ন এক ঈদুল আযহা। ঈদকে উদযাপন করার আনন্দ-উচ্ছাস ছিল না মানুষের মনে, বরং আতঙ্ক আর টিকে থাকার সময়ে থমকে যাওয়া দিন যাপনের মধ্যে ঈদের দিনটি পার করেছেন মাত্র। সবাই বলছেন, এমন ঈদুল আযহা জীবনে দেখিনি; আর দেখতেও যেন না হয় আর কখনোই। এই ঈদে পশু কোরবানীর সংখ্যা ছিল অন্যান্য বছরের তুলনায় কম। ঢাকায় বসবাসকারীরা ঈদের দিনটি কেমন কাটিয়েছেন- এমন প্রশ্ন করা হলে বেশ কয়েকজন বললেন করোনা আতঙ্কে তারা কোরবানী দেননি।

একদিকে করোনা সংক্রমণ, অন্যদিকে দেশের এক-তৃতীয়াংশেরও বেশি এলাকা এখন বন্যার পানির নীচে তলিয়ে আছে। ৬০ থেকে ৭০ লাখ মানুষ এখন বানভাসি, পানিবন্দী। এ অবস্থায় ঈদ কেমন কেটেছে জানতে চাওয়া হলে কয়েকজন বললেন নানা সংকটের কথা।

করোনা আর বন্যার পাশাপাশি জঙ্গী হামলার আশঙ্কা ব্যক্ত করেছিলেন অনেকে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীও ছিল সতর্কাবস্থায়। তবে বাংলাদেশের পুলিশ প্রধান বেনজীর আহমেদ সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন ভীতির কোন কারণ নেই।

এদিকে, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ১৩২ জন। এই সময়ে আরও ২ হাজার ১৯৯ জনের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ৩৯ হাজার ৮০৭ জনে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:33 0:00


XS
SM
MD
LG