অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মিয়ানমারের ধর্মীয় ও জাতিগত সংখ্যালঘুদের ওপরে এক বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ


জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশন অতিসম্প্রতি প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক ও বর্জনমূলক মনোভাবাপন্ন বিদ্যমান আইন, নীতি ও কর্মপদ্ধতি বাতিল এবং পরিবর্তনের জন্য মিয়ানমার সরকারের প্রতি তাগিদ দিয়েছে।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল বাসলে জেনেভায় মিয়ানমারের ধর্মীয় ও জাতিগত সংখ্যালঘুদের ওপরে এই বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। প্রতিবেদনে বলা হয়, এসব বৈষম্যমূলক আইন ও নীতির কারণে অর্ধ-শতাব্দীর বেশি সময় ধরে রোহিঙ্গাসহ সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠী নির্যাতন-নিপীড়ন, অর্থনৈতিক ও সামাজিক বঞ্চনার শিকার হচ্ছেন। বিশেষ করে, মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের রাষ্ট্রহীন করার জন্যে ১৯৮২ সালের নাগরিকত্ব আইন জারি করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মিয়ানমারের ধর্মীয় ও জাতিগত সংখ্যালঘুরা প্রায়ঃশই দেশটির সেনাবাহিনীর দ্বারা অত্যাচার ও মানবাধিকার লংঘনের মতো ঘটনার শিকার হন। সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বিচ্ছিন্নতাবাদী ও সশস্ত্র বিদ্রোহী গ্রুপগুলো দমন অভিযানের অসহায় টার্গেট হন সাধারণ মানুষ। প্রতিবেদনে এসব বিষয়কে মূল কারণ হিসেবে চিহ্নিত করে বলা হয়েছে, দীর্ঘকাল ধরে সমস্যার সমাধান না করে ধামাচাপা দেওয়ার রাষ্ট্রীয় নীতি-কৌশলই মিয়ানমারের রোহিঙ্গাসহ সংখ্যালঘুদের এই দূরাবস্থার কারণ।

please wait

No media source currently available

0:00 0:00:54 0:00


XS
SM
MD
LG