অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সাকিব দু’বছরের জন্য নিষিদ্ধ


ক্রিকেট দুনিয়ার সুপারস্টার সাকিব আল হাসানকে দু’বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে আইসিসি। জুয়াড়ির কাছ থেকে প্রস্তাব পাওয়ার পর তা প্রকাশ না করার কারণে আইসিসি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সাকিব আল হাসান অপরাধ স্বীকার করে বলেছেন, আমার মতো ভুল যেন আর কেউ না করে।

২০১৮ সালের জানুয়ারিতে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ের মধ্যেকার ত্রিদেশীয় সিরিজ ও আইপিএল-এ খেলার সময় জুয়াড়িদের কাছ থেকে সাকিব ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পান। কিন্তু তিনি তা কারো কাছে প্রকাশ করেননি। একই সিরিজে তিনি দ্বিতীয়বার প্রস্তাব পেলেও তা গোপন রাখেন। শুধু তাই নয়, একই বছরের এপ্রিলে সানরাইজার হায়দ্রাবাদ বনাম কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ম্যাচে তৃতীয় দফা প্রস্তাব পান। আইসিসির দুর্নীতি বিরোধী বিধিতে স্পষ্ট বলা আছে, এ ধরনের অসৎ প্রস্তাব পাওয়া মাত্রই তা বিস্তারিত প্রকাশ করতে হবে।

আইসিসি মঙ্গলবার বিকেলে জানিয়েছে, সাকিব আল হাসান যদি আগামী এক বছরের মধ্যে কোন বিচ্যুতির মধ্যে না পড়েন তাহলে তিনি ২০২০ সালের ২৯শে অক্টোবর আবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে আসবেন। আইসিসি কোন শুনানি ছাড়াই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কারণ, কোন চ্যালেঞ্জে যাননি সাকিব। বরং তার ত্রুটি স্বেচ্ছায় মেনে নিয়েছেন।

ওদিকে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আইসিসি সাকিবকে শাস্তি দিলে বেশি কিছু করার নেই। তবে বিসিবি তার পাশে থাকবে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:24 0:00
সরাসরি লিংক

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির প্রধান জালাল ইউনুস এবং সিনিয়র ক্রীড়া সাংবাদিক দিলু খন্দকারের বিশ্লেষন জানতে ওয়াশিংটন স্টুডিও থেকে কথা বলেছেন তাওহীদুল ইসলাম।


XS
SM
MD
LG