অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মিয়ানমার-বাংলাদেশ সম্পর্ক উন্নয়নে ইন্দোনেশিয়া কূটনৈতিক উদ্যোগ


A family stands beside remains of a market which was set on fire, in Rohingya village outside Maungdaw, in Rakhine state, Myanmar, Oct. 27, 2016.

মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের মানবিক সংকটের ইতি ঘটানো এবং এ কারণে সৃষ্ট বাংলাদেশ এবং মিয়ানমারের মধ্যকার দূরত্বপূর্ণ সম্পর্ক কমিয়ে আনার লক্ষ্যে ইন্দোনেশিয়া কূটনৈতিক উদ্যোগ অব্যাহত রেখেছে বলে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেতনো মারসুদি জানিয়েছেন। মঙ্গলবার প্রকাশিত ইন্দোনেশীয় প্রভাবশালী ইংরেজী দৈনিক জাকার্তা পোস্ট, দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় প্রভাবশালী ইংরেজী দৈনিক দ্য স্ট্রেইটস টাইমসসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেতনো মারসুদি বলেছেন, তার দেশ একটি অতি-স্পর্শকাতর সংকট মোকাবেলায় ব্যাপক কূটনৈতিক উদ্যোগ চালাচ্ছে। ইন্দোনেশিয়া রোহিঙ্গা সংকটের কারণে সৃষ্ট বাংলাদেশ এবং মিয়ানমারের মধ্যকার শীতল ওদূরত্বপূর্ণ সম্পর্কে উন্নয়নে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ইন্দোনেশীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, খুবই সাবধানতার সাথে তাদের কূটনৈতিক তৎপরতা চালাচ্ছে হচ্ছে-যাতে অধিকতর সংকটের সৃষ্টি না হয়।
গত ১৯ ডিসেম্বর মিয়ানমারে রোহিঙ্গা সংকট বিষয়ে আসিয়ান পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠককালে ইন্দোনেশীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গা সংকট প্রশ্নে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচি’র সাথে সাক্ষাত এবং আলোচনা করেন। পরের দিনই বাংলাদেশের কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন এবং ঢাকায় বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের সাথে বৈঠক করেন।
এ সম্পর্কে ঢাকা থেকে আমীর খসরুর রিপোর্ট।

XS
SM
MD
LG