অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে লকডাউন উঠে যাওয়ায় কোন করোনা নির্দেশনা মানা হচ্ছে না


বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টার হিসেবে সর্বোচ্চ সংখ্যক করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু এবং সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার পরিস্থিতির মধ্যে, ঝুঁকি আর আতংকের মাঝে দু’মাস বন্ধ থাকার পর রোববার থেকে খুলে দেওয়া হয়েছে সরকারি-বেসরকারি সব অফিস, ব্যাংক, বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান, কল-কারখানাসহ সবকিছুই। লকডাউন তুলে নেয়ায় গণপরিবহন অর্থাৎ বাস, ট্রেন, লঞ্চ চলাচলও চালু করা হয়েছে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ সামান্য কিছু শর্ত জুড়ে দেয়া হয়েছে। চিকিৎসকসহ বিশেষজ্ঞগণ এমন পরিস্থিতিতে ঢালাওভাবে সবকিছু খুলে দেয়ায় তীব্র উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোববার বলেছেন, অর্থনীতি ও যাতায়াতের বিষয়টি বিবেচনা করে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী জানান, এখনই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হবে না।

গত ২৪ ঘণ্টায় এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ সংখ্যক ৪০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী মারা গেছেন। এ নিয়ে দেশে ৬৫০ জন করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন। আবার ২৪ ঘণ্টায়ই রেকর্ডসংখ্যক ২ হাজার ৫৪৫ জনের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। আর মোট করোনায় আক্রান্ত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৭ হাজার ১৫৩ জনে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন এনটিভির অনুষ্ঠান বিভাগের প্রধান এবং বাংলাদেশ টেলিভিশনের সাবেক উপ-মহাপরিচালক মোস্তফা কামাল সৈয়দ। তার স্ত্রীও বর্তমানে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন। এছাড়াও একজন সাবেক সচিবসহ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন।

বিশেষজ্ঞ এবং চিকিৎসকগণ বলছেন, সবকিছু খুলে দেয়ায় করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু ব্যাপকহারে বেড়ে যাবে। যেমনটি সংবাদ মাধ্যমকে বলছিলেন, রোগতত্ত্ব ও রোগ নিয়ন্ত্রণ বিশেষজ্ঞ ডা. বেনজীর আহমদ।

লকডাউন উঠে যাওয়ায় বিপুলসংখ্যক মানুষ ঘরের বাইরে বেরিয়েছেন। ব্যক্তিগত গাড়ি রাস্তায় নেমেছে অনেক। কোন ধরনের করোনা নির্দেশনা মানা হচ্ছে না। পুরোদমে বাস চলাচল শুরু হবে সোমবার থেকে। সরকারি ঘোষণা মোতাবেক বাস ভাড়া বেড়েছে ৬০ শতাংশ।

please wait

No media source currently available

0:00 0:03:06 0:00


XS
SM
MD
LG