অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

চীনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের ফোনালাপ


File Photo

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং গতরাতে ফোনে কথা বলেছেন। গত নভেম্বর মাসে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বাইডেন  জয়লাভের পর এটাই ছিল এ দু জনের মধ্যে প্রথম ফোনালাপ । বাইডেন “আমেরিকান জনগণের নিরাপত্তা, সমৃদ্ধি , স্বাস্থ্য ও জীবনধারা  সুরক্ষা করা এবং ইন্ডো -প্যাসিফিক অঞ্চলকে মুক্ত ও অবাধ রাখার ব্যাপারে তাঁর অগ্রাধিকারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন বলে হোয়াইট হাউজের এক বিবরণীতে   জানানো হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং গতরাতে ফোনে কথা বলেছেন। গত নভেম্বর মাসে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বাইডেন জয়লাভের পর এটাই ছিল এ দু জনের মধ্যে প্রথম ফোনালাপ । বাইডেন “আমেরিকান জনগণের নিরাপত্তা, সমৃদ্ধি , স্বাস্থ্য ও জীবনধারা সুরক্ষা করা এবং ইন্ডো -প্যাসিফিক অঞ্চলকে মুক্ত ও অবাধ রাখার ব্যাপারে তাঁর অগ্রাধিকারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন বলে হোয়াইট হাউজের এক বিবরণীতে জানানো হয়।

এই দুই নেতা করোনাভাইরাস মহামারি , জলবায়ু পরিবর্তন এবং অস্ত্র নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারে হোয়াউট হাউজ যাকে “ সম্ভাব্য বাস্তব সম্মত এবং সুফলদায়ী বলছে সে বিষয়েও ওয়াশিংটন ও বেইজিং এর প্রচেষ্টা নিয়ে আলোচনা করেন। তবে কর্মকর্তারা তাঁদের মতবরোধের কয়েকটি মূল জায়গায় অটল থাকেন। ঐ বিবরণীতে বলা হয়েছে, “ বেইজিং’এর জোর জবরদস্তিমূলক এবং অন্যায্য অর্থনৈতিক কর্মকান্ড , হংকং ‘এ অভিযান চালানো , ঝিনজিয়াং ‘এ মানবাধিকার লংঘন এবং তাইওয়ান সহ ঐ অঞ্চলে ক্রমবর্ধমান ভাবে আধিপত্যবাদী কার্যকলাপ সম্পর্কে প্রেসিডেন্ট বাইডেন তাঁর মূল উদ্বেগের কথাও তুলে ধরেন”।

চীনের রাষ্ট্র পরিচালিত টেলিভিশন বলে প্রেসিডেন্ট শি বাইডেনকে বলেছেন তাঁদের মতপার্থক্য নিরসন করার একমাত্র উপায় হচ্ছে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা । কোন রকম ভুল বোঝাবুঝির অবসানের জন্য শি একাধিক সরাসরি সংলাপের আহ্বান জানান। টেলিভিশনের প্রতিবেদনে আরও বলা হয় যে শি বাইডেনকে বলেছেন যে তিনি আশা করেন যে তাইওয়ান , হংকং এবং ঝিনজিয়াং ‘এর ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্র সাবধানতার সঙ্গে এগুবে কারণ এগুলো হচ্ছে চীনের অভ্যন্তরীন বিষয়।

.

XS
SM
MD
LG