অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ব্রিটেনে করোনা ভাইরাস আবার দ্রুত গতিতে বাড়ছে  


লন্ডনের পিকাডেলি সার্কাস স্টেশনের সামনে মাস্ক পরে চলফেরা করছেন লোকজন- অক্টোবর ১৮, ২০২১- এপি

ব্রিটেনে করোনা ভাইরাস দ্রুত গতিতে বাড়ছে। বলা হচ্ছে, ব্রিটেন চতুর্থ তরঙ্গের দ্বারপ্রান্তে। সংক্রমণ আর মৃত্যুর হার দেখে বিশেষজ্ঞরা খুবই চিন্তিত। বিশেষ করে গত ২৪ ঘণ্টায় ২২৩ জনের মৃত্যু বিশেষজ্ঞদের ভাবিয়ে তুলেছে। যা গত মার্চের পর এটাই প্রথম। সংক্রমণের হারেও ঊর্ধ্বগতি। গত ২৪ ঘণ্টায় প্রায় ৪৪ হাজার মানুষের শরীরে করোনার লক্ষণ দেখা দিয়েছে।

উল্লেখ্য যে, এ পর্যন্ত ব্রিটেনে সংক্রমিত হয়েছেন ৮৫ লাখ ৪১ হাজার ১৯২ জন। মারা গেছেন ১ লাখ ৩৮ হাজার ৮৫২ জন।

সংক্রমণ আর মৃত্যু বেড়ে যাওয়ায় বিশেষজ্ঞরা আবার বিধি-নিষেধ আরোপ করার পক্ষে মত দিচ্ছেন। সেখানকার ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস (এনএইচএস) বলেছে, শীত মৌসুমে করোনার দাপট আরও বাড়বে। তাই এখনই সংক্রমণ থেকে বাঁচতে পুণরায় কোভিড বিধি-নিষেধ চালু করতে হবে। এখনই একটি ব্যাকআপ কৌশল নিতে হবে। মাস্কের উপরও তারা জোর দিয়েছেন। এই মুহূর্তে শতকরা পাঁচ ভাগ মানুষ মাস্ক পরছেন। রাস্তা-ঘাটে, ট্রেনে, বাসে, শপিং সেন্টারে, খেলার মাঠে, পাব’এ, রেস্তরাঁয় মাস্ক পরা কম লোকের সঙ্গেই দেখা হয়।

বিজনেস সেক্রেটারি কোয়াসি কোয়ার্তেং মনে করেন, প্ল্যান-বি গ্রহণের সময় আসেনি। তাই এখনই লকডাউন নয়। অর্থনীতি বিপন্ন হবে এমন কোনো সিদ্ধান্ত চটজলদি নেয়া ঠিক হবে না। এই শীতে ইংল্যান্ডে কোভিড মোকাবিলার জন্য সরকারের পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে ৩ কোটি মানুষকে বুস্টার ডোজ দেয়া। এছাড়া ১২ থেকে ১৫ বছর বয়সীদের জন্য ভ্যাকসিন নিশ্চিত করা। স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, এতে যদি কাজ না হয় তাহলে মাস্ক আবার বাধ্যতামূলক করতে হবে। মানুষকে বাড়ি থেকে কাজ করতে বলতে হবে। যদিও অনেকেই এখন পর্যন্ত বাড়ি থেকে কাজ করছেন। ভ্যাকসিন পাসপোর্ট প্রবর্তনের মতো পদক্ষেপগুলো প্ল্যান-বি এর অংশ হিসেবে বিবেচনা করার কথাও চিন্তাভাবনা হচ্ছে।

ওদিকে পশ্চিম ইংল্যান্ডে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার কারণ হিসেবে প্রযুক্তিগত ত্রুটির কথা বলা হচ্ছে। এতে করে ভুল ফলাফল এসেছে। উলভারহ্যাম্পটনের একটি বেসরকারি পরীক্ষাগারে প্রযুক্তিগত সমস্যার কারণে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার ভুল ফলাফল পাওয়া গেছে। যে কারণে সেখানকার চলমান তদন্তের মধ্যে অপারেশন স্থগিত করা হয়েছে। ইউকে হেলথ সিকিউরিটি এজেন্সি জানিয়েছে, ৪ঠা সেপ্টেম্বর থেকে ১২ই অক্টোবরের মধ্যে এই ভুল পিসিআর ফলাফলগুলো পাওয়া গিয়েছিল।

মঙ্গলবার গভীর রাতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলেছে, গত সপ্তাহে সারা বিশ্বে প্রায় ২৭ লক্ষ লোক কোভিড রোগে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন। এ সময় মারা গেছেন ৪৬ হাজার মানুষ। আফ্রিকা অঞ্চলে সংক্রমণ কমেছে। তবে আমেরিকা এবং মধ্যপ্রাচ্যসহ অন্যান্য অঞ্চলগুলোতে আগের সপ্তাহের মতোই সংক্রমণ অব্যাহত রয়েছে।

XS
SM
MD
LG