অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

শুভ বড়দিন উপলক্ষে পোপ ফ্রান্সিস জেরুজালেম নিয়ে শান্তির আহ্বান জানিয়েছেন


আজ পঁচিশে ডিসেম্বর, শুভ বড়দিন। পৌপ ফ্রান্সীস জেরুযালেম নিয়ে শান্তির আহ্বান জানিয়েছেন – কোরিয় উপদ্বীপের ব্যাপারে পারস্পরিক আস্থাবোধের ডাক দিয়েছেন- ঐতিহ্যবাহি ধারায় সেইন্ট পীটার্স ব্যাসিলিকার সেনট্রাল ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে বড়োদিনের বাণী- ঊরবী এট অরবী – To the city and the World উদ্দেশ করে দেওয়া তাঁর ভাষনে, বিশ্বজোড়া বিরোধ বিসম্বাদে অপ্রাপ্ত বয়স্ক শিশু সন্তানদের নিগ্রহ-যাতনার প্রতি মনোযোগ আকর্ষন করেছেন।

ফ্রান্সীস ইস্রাইলী ও ফিলিস্তিনীদের মধ্যেকার বর্ধমান উত্তেজনা চারিয়ে ওঠার কথা বলেছেন- সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর মধ্যে সংলাপ আবার নতুন ক’রে শুরুর সদিচ্ছার কথা উল্লেখ করেছেন- দু’ই রাষ্ট্র শান্তিপূর্ণভাবে সহাবস্থানে বসবাস করতে পারবে , নিস্পত্তি আলোচনার মাধ্যমে এমনি একটি চূড়ান্ত নিস্পত্তিতে উপনীত হবার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

কোরিয় উপদ্বীপে যে মুখোমুখি সহিংস সংঘাত পরিস্থিতির উদ্ভব হয়েছে, আসুন আমরা তার সমাধানের জন্যে - সারা দুনিয়া জাহানের স্বার্থে পারস্পরিক আস্থাবোধের উদয় হোক তার নিমিত্ত প্রার্থনা জানাই – বলেন ঐ ধর্মগুরু।

বড়দিনের সময় খৃসমাস ইভ ম্যাস- বড়োদিনের প্রাক্কালে অনুষ্ঠিত গণ প্রার্থনা সভায় সেইন্ট পীটার্স ব্যসিলিকার অন্দরে-বহিরাঙ্গনে সমাগত প্রায় দশ হাজার পুন্যার্থির উপস্থিতিতে পৌপ ফ্রান্সীস অভিবাসিদের স্বার্থ সূরক্ষায় দৃপ্ত বক্তব্যের অবতারনায় মেরী ও জৌসেফ যে বেথলেহেমে থাকবার কোনো যায়গা পাননি তার সঙ্গে অভিবাসিদের তুলনা করে বলেন-ধর্মবিশ্বাসই অকুণ্ঠ ভাষায় বলে দেয় বিদেশি বহিরাগতদেরকে আলিঙ্গনাবদ্ধ করতে হবে- নবতরো সামাজিকতার বিভাবনা নিয়ে আসতে হবে।

অভিবাসী যাঁরা তাঁদের ভিটেমাটি থেকে উৎখাত হয়েছেন, নিরিহ-নির্দোষ মানুষের রক্তক্ষরণ করায় নেতৃবর্গের ইচ্ছাপূরণের কারণে, সেই তাঁদের দু’:খ যাতনার কথা - বিশ্বের এক শ’ বিশ কোটিরও বেশি ক্যাথোলিক ধর্মানূসারীর ভুললে চলবেনা।

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:19 0:00

XS
SM
MD
LG