অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

সুচিকে প্রফেসর ইউনূস: বাংলাদেশে এসে দেখুন রোহিঙ্গারা কেমন আছেন


Smoke is seen on Myanmar's side of border as an exhausted Rohingya refugee woman is carried to the shore after crossing the Bangladesh-Myanmar border by boat through the Bay of Bengal, in Shah Porir Dwip, Bangladesh September 11, 2017.

নোবেল বিজয়ী প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইউনূস মিয়ানমার নেত্রী অং সান সুচি’কে শান্তির পথ বেছে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। বলেছেন, রোহিঙ্গাদের কাছে অং সান সু চি’র এ কথা বলা উচিত যে, মিয়ানমার যেমন তার দেশ; তেমনি রোহিঙ্গাদেরও দেশ। সংযুক্ত আরব আমিরাতের ‘দ্য ন্যাশনালে’ লেখা একটি নিবন্ধে ড. ইউনূস এ আহ্বান জানান। তিনি বলেন, চট্টগ্রামের যে গ্রামে আমি বেড়ে ওঠেছি সেখান থেকে মাত্র কয়েক মাইল দূরেই ঘটে গেছে এক বিশাল মানব ট্রাজেডি। এর ফলে অসহায়-সর্বহারা নারী-পুরুষ ও শিশুর ঢল নেমেছে বাংলাদেশ সীমান্তে। প্রতিদিনই সীমান্ত লাগোয়া নাফ নদী দিয়ে রোহিঙ্গাদের লাশ ভেসে আসছে। প্রফেসর ইউনূস চলমান রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে ৭ দফা সুপারিশ উত্থাপন করেছেন। তার মধ্যে রয়েছে, কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়ন। রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দেশত্যাগ বন্ধ করতে হবে। স্পর্শকাতর এলাকাগুলোতে আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকদের সফরের জন্য আমন্ত্রণ জানাতে হবে। রোহিঙ্গাদের দেশে ফিরিয়ে নেয়ার পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। ফিরে যাওয়া শরণার্থীদের পুনর্বাসনে জাতিসংঘের অর্থায়ন ও তত্ত্বাবধানে মিয়ানমারের ভেতরে ক্যাম্প তৈরি করতে হবে। রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দিতে হবে। সবার রাজনৈতিক স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে হবে। ড. ইউনূস আরও লিখেছেন, মিয়ানমার সরকারের শীর্ষ ব্যক্তি অং সান সু চি’র উচিত বাংলাদেশে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরগুলো পরিদর্শন করা। তাতেই তিনি বুঝতে পারবেন, কী এক অবর্ণনীয় দুঃখ-দুর্দশার মধ্যে রয়েছেন তার দেশের নাগরিকরা।
ঢাকা থেকে মতিউর রহমান চৌধুরীর রিপোর্ট।

XS
SM
MD
LG