অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

দুর্গাপুজোর বিধিনিষেধ নিয়ে আগের রায় বহাল রেখেছে কলকাতা হাইকোর্ট


পশ্চিমবঙ্গের সচেতন বাসিন্দাদের স্বস্তি দিয়ে আজ কলকাতা হাইকোর্ট দুর্গাপুজোর বিধিনিষেধের কড়াকড়ি সম্পর্কে তাদের আগের রায়ই বহাল রেখেছে। দুর্গাপুজো সংগঠকদের একাংশ এটি পুনর্বিবেচনার যে আর্জি জানিয়েছিল, তা খারিজ করে দিয়ে বুধবার হাইকোর্ট বলেছে, জনস্বার্থে যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, তা ভেবেচিন্তেই দেওয়া হয়েছে। তার থেকে সরে এলে বিপদ হবে। তবে পুজোর উদ্যোক্তাদের সামান্য স্বস্তি দিয়ে আগেকার নিয়মে যতজন উদ্যোক্তাকে পুজোমণ্ডপে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল, তার সংখ্যা কিছুটা বাড়ানো হয়েছে। বলা হয়েছে, বড় পূজামণ্ডপগুলোতে এক সঙ্গে ৪৫ জন উদ্যোক্তা ঢুকতে পারবেন। যাঁদের প্রবেশাধিকার থাকবে, তাঁদের তালিকা রোজ বদলানো যাবে। তবে প্রতিদিন সকাল ৮টায় তালিকা জমা দিতে হবে। তাতে ৬০ জনের নাম থাকতে পারবে, তার ভেতর থেকেই ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে যে কোনও ৪৫ জন একবারে ঢুকতে পারবেন। ছোট পুজোর ক্ষেত্রে তালিকায় ৩০ জনের নাম থাকতে পারবে, ১৫ জন একসঙ্গে মণ্ডপে ঢুকতে পারবেন। এ ছাড়া ঢাকি, যাঁরা অন্যান্য জেলা থেকে আসেন, তাঁদের মন্ডপ ও নো এন্ট্রি সাইনের মাঝখানে বাফার জোনে থাকার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে চিরাচরিত প্রথায় পুজোয় অঞ্জলি দেওয়া এবং বিজয় দশমীর দিন প্রতিমা বিসর্জনের আগে মহিলাদের সিঁদুর খেলা নিষিদ্ধই রয়েছে। দর্শকদের জন্য মণ্ডপগুলোতে নো এন্ট্রি ও দূরত্ব বিধি বহাল থাকবে। সব মিলিয়ে শঙ্কিত রাজ্যবাসীর জন্য এ বার কলকাতা হাইকোর্টই করোনা সংক্রমণের মোকাবিলায় ত্রাতার ভূমিকা নিয়েছে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:01:30 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG