অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

নতুন সংক্রমণের প্রেক্ষিতে ইউরোপে ভ্যাকসিন কর্মসূচি জোরালো করার উদ্যোগ


ফাইল ফটোতে একজন স্বাস্থ্যকর্মী জার্মানিতে ফাইজার টিকা দিচ্ছেন- এপি

ইউরোপে সংক্রমণ বৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে বিভিন্ন সরকার উপায় খুঁজে দেখছেন যে কি করে প্রধানত ২০ বা ৩০ বছর বয়সী যারা টিকা নেয়নি তাদের টিকা নিতে বাধ্য করা এবং লক ডাউনে প্রত্যাবর্তন থেকে রেহাই পাওয়া যায়I

ইতালি ও ব্রিটেন টিকা না নেয়া ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ফ্রান্সের আরোপিত নিষেধাজ্ঞাগুলি মানতে শুরু করেছে, যে কারণে দুটি দেশেই শনি ও রবিবার বিক্ষোভ প্রদর্শিত হয়েছেI বেশ কিছু রক্ষণশীল আইনপ্রণেতাএ বছরের শেষে দলের বার্ষিক সম্মেলন বর্জন করার হুমকিও দিয়েছেন কারণ সেখানে উপস্থিত থাকতে হলে অবশ্যই টিকা নিতে হবে।

নতুন বাধ্যবাধকতা যে ফলপ্রসূ হয়েছে সে ব্যাপারে প্রাথমিক ইঙ্গিত মিলেছেI ইতালিতে আগামী মাস থেকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে শুধুমাত্র তাদেরকেই স্টেডিয়াম, মিউজিয়াম, সিনেমা, সুইমিং পুল এবং শরীর চর্চা কেন্দ্রে যেতে দেয়া হবে যারা পুরোপুরি টিকা নিয়েছেনI রোমের কর্তৃপক্ষ জানান কয়েকটি অঞ্চলে টীকার জন্য নিবন্ধনের সংখ্যা ২০০% বৃদ্ধি পায়I

ফ্রান্সে যখন ঘোষণা করলো যে বহু জায়গায় প্রবেশের জন্য তাদের টিকার প্রত্যায়ন দেখাতে হবে, তখন থেকে সেখানে বুকিং'র সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছেI

ইতালি সরকার দেশে জরুরি অবস্থা ৩১শে ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়িয়ে দিয়েছে, তবে তীব্র প্রয়াস রাখছে যেন লক ডাউন পরিহার করা যায় বা লাজিও, সিসিলি, ভেনেতো এবং সার্দিনিয়ায় সংক্রমণ বৃদ্ধি পেলেও কঠোর ব্যবস্থা আবারো নিতে না হয়I প্রধানমন্ত্রী দ্রাগি গত সপ্তাহে সংবাদদাতাদের বলেন, “ স্বাস্থ্য বিষয়ক ছাড়পত্রই হচ্ছে ইতালির জনগণের জন্য তাদের কর্মকান্ড চালিয়ে যাবার যাতে এটা নিশ্চিত করা যায় যে তারা সংক্রমিত নয়”।

XS
SM
MD
LG