অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

গত সপ্তার অনুষ্ঠানে খুব পরিস্কার ভাবেই ওয়াশিংটনে সেন্টার ফর ডেমক্র্যাসি এন্ড হিউমান রাইটস ইন সৌদি অ্যারাবিয়ার নির্বাহী পরিচালক ড আলী আলিয়ামি বলছিলেন ওয়াহাবিবাদের সঙ্গে উগ্রবাদের একটি সম্পর্কের কথা । ওয়াহাবিবাদ মানেই হয়ত সন্ত্রাসবাদ নয় ,সহিংস উগ্রবাদ নয় কিন্তু ইসলাম ধর্মকে বিশুদ্ধিকরণের যে উদ্যোগ গ্রহণ করেন আঠারো শতকের ধর্মপ্রচারক মোহাম্মদ ইবনে আব্দাল ওয়াহাব তার তত্বে ও চেতনায় এক ধরণের উগ্রবাদ ছিল। ইসলামকে বিশুদ্ধিকরণের এই প্রয়াসের কারণে একদিকে ইসলাম যেমন বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে তার আঞ্চলিক সংস্কৃতি থেকে অন্য দিকে ঠিক তেমনি ইসলামের একটি অভিন্ন বৈশ্বিক রূপ স্থাপন করা হয়। একদিক থেকে সেটা যেমন ইতিবাচক কারণ ইসলাম বিশ্বের সকল মানুষের জন্য এসছে , অন্যদিকে সমস্যার বিষয়টি হচ্ছে স্থানীয় ও আঞ্চলিক সমাজ ও সংস্কৃতিকে জোর করে বিসর্জন দিতে বাধ্য করা।

উদ্দেশ্যে। ইসলাম ধর্মের তাত্বিক বিশ্লেষণ ও ব্যাখ্যায় এসছে বড় রকমের পরিবর্তন। বাংলাদেশে ইসলামের প্রচার ও প্রসারে সুফিরা অত্যন্ত বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করেছেন। তাঁরা শক্তি নয় , ভক্তি দিয়েই মানুষের মন জয় করেছেন। কিন্তু ওয়াহাবিবাদের শুদ্ধি অভিযানে সেই অনুভূতি ক্রমশই যেন ক্ষয়িষ্ণু । অনেকেই বলেন যে আরব বিশ্বে কর্মসংস্থান পাবার পর , বাংলাদেশের মানুষ যে কেবল অর্থ উপার্জন করছেন তাই নয় বরঞ্চ বৈদেশিক মুদ্রার সঞ্চয় ও সম্ভার বৃদ্ধির পাশাপাশি , বৃদ্ধি পাচ্ছে কট্ররপন্থি বিশুদ্ধবাদী কিছু আদর্শ যা মুসলমানদের সঙ্গে অন্য যে কোন ধর্মবিশ্বাসী মানুষের সহাবস্থানকে কঠিন করে তুলছে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:12:38 0:00

XS
SM
MD
LG