অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের নিয়ে অপতথ্য প্রচারের ব্যক্তিগত পোস্ট প্রকাশে ফেইসবুকের আপত্তি


ফাইল ছবি, ফেইসবুকের সিএও মার্ক জুকেরবার্গ ক্যালিফোর্নিয়ায় ফেইসবুকের সদর দপ্তরে সংবাদ সম্মেলনে ভাষণ দিচ্ছেন/ছবি রবার্ট গালব্রেইথ/রয়টার্স

ফেইসবুককে মিয়ানমারের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিম জাতিগোষ্ঠিকে নিয়ে তথ্য অপপ্রচারের জন্য ব্যবহার করা হয়েছিলI সহিংসতা বৃদ্ধি করতে পারে এমন সব প্রকাশিত খবর, একাউন্ট ও অন্যান্য তথ্যাবলী ২০১৮ সালে তারা মুছে ফেলতে শুরু করেI

আন্তর্জাতিক আদালতের দাবির অংশ হিসেবে ফেইসবুক সেই তথ্য প্রকাশ করবে কিনা যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে সেই মুছে ফেলা তবে সংগৃহীত উপাত্তই এখন ইস্যু হয়ে দাঁড়িয়েছেI

ফেইসবুক এসপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাজিস্ট্রেটের জারি করা নির্দেশের একটি অংশের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানায়। এতে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ভূমিকা যাচাই করতে তদন্তকারীদের কাছে কতটা তথ্য ইন্টারনেট কোম্পানিকে ফিরিয়ে দিতে হবে তার ওপর প্রভাব ফেলতে পারেI

গত মাসে বিচারক মুছে ফেলা এ সব আকাউন্ট সম্পর্কে গাম্বিয়ার কাছে তথ্য করতে ফেইসবুকের প্রতি আদেশ জারি করেন।পশ্চিম আফ্রিকার ঐদেশটি আন্তর্জাতিক আদালতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গণহত্যার দাবি এনে এশিয়ার দেশটিকে দোষী সাব্যস্ত করার জন্য মামলা চালিয়ে যাচ্ছে।

তবে ফেইসবুক বুধবার তাদের পক্ষ সমর্থন করে জানায়, বিচারকের এই আদেশে মানবাধিকার বিষয়ে তাদের নিজস্ব উদ্বেগের সৃষ্টি করবে, ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য অরক্ষিত হয়ে পড়বে এবং তা প্রকাশের ঝুঁকি থাকবে, যা খেয়ালখুশি মোতাবেক ব্যবহারকারীরা ব্যক্তিগত মামলাকারী, বিদেশী সরকার, আইন প্রয়োগকারী সংস্থা বা অন্য কারুর কাছে দিতে পারবেন I

ফেইসবুক যুক্তি দেখায় যে মুছে ফেলা তথ্য-উপাত্ত প্রকাশ হবে যুক্তরাষ্ট্রের ব্যক্তিগত জমাকৃত যোগাযোগ আইনের লঙ্ঘন। ইলেক্ট্রনিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষায় ৩৫ বছর আগে এইআইনটি পাশ হয়েছিলI

XS
SM
MD
LG