অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রের সৈন্যদলের পূর্ণ প্রত্যাহারের ট্রাম্পের টুইট সম্পর্কে পেন্টাগন নিশ্চুপ


বছর শেষ হওয়ার আগেই দক্ষিণ এশিয়াতে অবস্থানরত যুক্তরাষ্ট্রের সৈন্যদলের দেশে ফিরে যাওয়া উচিত টুইটারে প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের এহেন মন্তব্যের অতিরিক্ত কোন তথ্য দেয়নি পেন্টাগন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প টুইটারে লেখেন, "ক্রিসমাসের আগে আফগানিস্তানে কর্মরত আমাদের সাহসী পুরুষ এবং মহিলাদের বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে আসা উচিত।" বুধবার রাতে ভাইস প্রেসিডেন্ট বিতর্কের কিছুক্ষণ আগে ট্রাম্প এই টুইট করেন। প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার, জয়েন্ট চিফস চেয়ারম্যান জেনারেল মার্ক মিলি এবং ইউএস সেন্ট্রাল কমান্ডের (সেন্টকম) মুখপাত্র, যারা মধ্যপ্রাচ্যে সামরিক অভিযানের তত্ত্বাবধানে রয়েছন, তারা কোন মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানায়। বৃহস্পতিবার পেন্টাগনের এক অনুষ্ঠানে এসপার আফগান প্রত্যাহার নিয়ে কোন প্রশ্নের উত্তর দেননি। নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন সামরিক কর্মকর্তা ভয়েস অফ আমেরিকাকে বলেন,রআফগানিস্তান থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সৈন্য দ্রুত প্রত্যাহারের সময়সীমা সম্পর্কে ঐ টুইটের মাধ্যমে সর্বপ্রথম সবাই জানতে পেরেছে। এবং তার অফিস পেন্টাগনের নীতি নির্ধারক দলের কাছ থেকে "আরো দিক নির্দেশনারপাবার জন্য" অপেক্ষা করছে। ট্রাম্প বিদেশের যুদ্ধেযুক্তরাষ্ট্রের অংশগ্রহণকে "হাস্যকর, নির্বোধ, অনন্ত, বিদেশী যুদ্ধ" বলে অভিহিত করেছেন এবং তার সাম্প্রতিক টুইট, যদি বাস্তবায়িত হয়, তাহলে তিনি যুক্তরাষ্ট্রকে আফগানিস্তান থেকে বের করে আনার জন্য তার দীর্ঘদিনের প্রচারণার প্রতিশ্রুতি পূরণ করবেন। বেশীরভাগ আমেরিকানও যুক্তরাষ্ট্রের বাহিনীকে ঘরে ফিরিযে নিয়ে আসার বিষয়টিকে সমর্থন করে। প্রেসিডেন্টের এই টুইট তার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা রবার্ট ও'ব্রায়েনের প্রকাশিত পরিকল্পনাকে ব্যাপকভাবে ত্বরান্বিত করেছে। ঐ টুইটের কয়েক ঘন্টা আগে রবার্ট ও'ব্রায়ান বলেন যুক্তরাষ্ট্র ২০২১ সালের শুরুতে আফগানিস্তানে সৈন্যদলেরসংখ্যা ৫,০০০ থেকে কমিয়ে ২,৫০০ করতে চায়। পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাইক পম্পেও সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে ও'ব্রায়েনের মতোই একই ধরনের সময়সীমার কথা প্রকাশ করে বলেন যে সামরিক বাহিনী ২০২১ সালের বসন্তের মধ্যে পুরোপুরি প্রত্যাহারের জন্য এগিয়ে যাচ্ছে।

XS
SM
MD
LG