অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রোহিঙ্গা শরণার্থী নিয়ে কেউ কেউ ব্যবসা করছেনঃ অভিযোগ শেখ হাসিনার


বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অভিযোগ করেছেন যে তাঁর দেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের নিয়ে অনেকে ব্যবসা করছে, যে কারণে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে বার বার তাগিদ দেওয়া সত্ত্বেও ঝুলে থাকা এ সংকট সমাধানে আশাব্যঞ্জক সাড়া মিলছে না।

প্রায় দুই সপ্তাহ ব্যাপী যুক্তরাষ্ট্র সফর ও জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনে যোগদান শেষে দেশে ফিরে প্রধানমন্ত্রী সোমবার বিকেলে তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এমন মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, মনে হয় কোন কোন সংস্থার জন্য রিফিউজি পালাটা একটা ব্যবসা, কারণ

এরা না থাকলে তাদের চাকরিই থাকবে না। তবে তিনি বলেন এবারের জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে রোহিঙ্গা সংকট এবং এর স্থায়ী সমাধানের বিষয়টি ব্যাপকভাবে আলোচিত হয়েছে।

আলোচনায় রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ অব্যাহত থাকবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন । তিনি বলেন রোহিঙ্গা সঙ্কট সম্পর্কে বিশ্বনেতাদের আবারও মনে করিয়ে দেয়া হয় যে এই সঙ্কটের সৃষ্টি মিয়ানমারে এবং এর সমাধানও রয়েছে মিয়ানমারে। রাখাইন রাজ্যে তাদের মাতৃভূমিতে নিরাপদ,

টেকসই ও মর্যাদাপূর্ণ প্রত্যাবাসনের মাধ্যমেই কেবল এ সঙ্কটের স্থায়ী সমাধান হতে পারে বলে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এ সংকট সমাধানের জন্য গঠনমূলক উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অংশগ্রহণের বিশদ বিবরণ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন এবারের অধিবেশনে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল করোনা মহামারি থেকে টেকসই উত্তরণ। করোনার টিকার সর্বজনীন প্রাপ্যতা, সহজলভ্যতা ও মহামারি থেকে টেকসই পুনরুদ্ধারের বিষয়টি আলোচনায় প্রাধান্য পেয়েছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন পাশাপাশি জলবায়ু পরিবর্তন, নারীর ক্ষমতায়ন, সমতা ও অন্তর্ভুক্তি, বর্ণবাদ, পারমাণবিক অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণের মত বিষয়গুলো আলোচনায় উঠে এসেছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন করোনা মহামারির মধ্যেও বাংলাদেশ যে অবিচলভাবে এসডিজি অর্জনে এগিয়ে যাচ্ছে তার স্বীকৃতি হিসাবেজাতিসংঘের সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট সল্যুশন নেটওয়ার্কের পক্ষ থেকে তাকে ‘এসডিজি প্রোগ্রেস অ্যাওয়ার্ড’ দেয়া হয়েছে । সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই পুরস্কারটি দেশের জনগণকে উৎসর্গ করেন।

এক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলে বিএনপি জানে যে আগামী জা্তীয় নির্বাচনে তাদের আর কোনও সম্ভাবনা নাই সে কারণেই তারা নির্বাচনকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করছে। তিনি বলেন দুর্নীতিগ্রস্থ নেতৃত্বের ওপর মানুষ ভরসা রাখতে পারে নাই বলেই জনগণ বিএনপিকে ভোট দেয় নাই। শেখ হাসিনা প্রশ্ন রাখেন বিএনপিকে কোন আশায় মানুষ ভোট দেবে।মানুষ ভোট দেয় তাদের যাদের ক্ষমতায় আসার সম্ভাবনা থাকে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন তাদের তো কোনও সম্ভাবনা নাই। সর্বশেষ যে জা্তীয় নির্বাচন হয়েছে তাতে ভোটাররা ছিল স্বতঃস্ফূর্ত উল্লেখ করে তিনি বলেন অনেক চেষ্টা হয়েছে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে কিন্তু এরপরেও নির্বাচন হয়েছে।

করোনার টিকা প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন মানবজাতির জন্য এটা খুব দুর্ভাগ্যজনক যে কোনো একটা মহামারি দেখা দিলে সেখানে কিছু শ্রেনী আছে তারা তাদের আর্থিক লাভ লোকসানের দিকে যত বেশি তাকায় ঠিক মানুষের দিকে ততটা দৃষ্টি দেয়া হয় না। যে কারণে টিকাকে সার্বজনীন করার জন্য জোর দিচ্ছে বাংলাদেশ এবং একই সাথে বাংলাদেশ টিকা তৈরি করতেও প্রস্তুত আছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

XS
SM
MD
LG