অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপলিস শহরে গত রাত থেকে শহরে জরুরি অবস্থা জারি


যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপলিস শহরের মেয়র জ্যাকব ফ্রে গত রাতে সেই শহরে জরুরি অবস্থা জারি করেছেন। মিনেসোটার গভর্ণরের অনুরোধে ৫০০ জন ন্যাশনাল গার্ড সৈন্যকে সতর্ক রাখা হয়েছে এবং তাদেরকে মিনিয়াপলিস, সেন্ট পল এবং আশপাশের এলাকায় মোতায়েন করা হবে। মেয়র ফ্রে আজ ভোরে বলেছেন, শহরটি অনেক কষ্ট এবং ক্ষোভের মধ্যে রয়েছে তবে পুলিশের হেফাজতে থাকা একজন আফ্রিকান-আমেরিকান লোকের মৃত্যুর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে লুঠতরাজ এবং অগ্নিসংযোগ করা গ্রহণযোগ্য নয়। ফ্রে বলেন ক্ষতিগ্রস্ত সম্পত্তিগুলোও আমাদের সমাজের জন্যে গুরুত্বপূর্ণ।

বিক্ষোভকারীরা বৃহস্পতিবার রাতে একটি পুলিশ প্রাঙ্গনে এবং আশপাশের ভবনে অগ্নিসংযোগ করে তার আগেই পুলিশের লোকজনকে সেখান থেকে নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয় এবং ঐ অগ্নিসংযোগের সময় কিংবা তার পরে সেখানে পুলিশ কিংবা দমকল বাহিনীর কোন লোকই ছিল না। সেন্ট পলের পুলিশ বলছে তাদের উপর পাথর এবং বোতল ছুঁড়ে মারা হয়েছে। সেন্ট পলে লুঠতরাজের খবর ও পাওয়া গেছে।

বিক্ষোভকারীরা সোমবার রাতে জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে যখন একজন শ্বেতাঙ্গ পুলিশ তাকে আটকে রেখে তার গলার উপর পা দিয়ে চাপ দেয় এবং অভিযোগ হচ্ছে তাকে হত্যা করে। মিনিয়াপলিসের পুলিশ বলছে ফ্লয়েড দেখতে একজন সন্দেহভাজন ব্যক্তির মতো ছিল যার বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল যে সে কুড়ি ডলারের একটি নকল নোট খাবার দোকানে ব্যবহার করার চেষ্টা করছিল। পুলিশ বলে ফ্লয়েড গ্রেপ্তার ঠেকানোর চেষ্টা করছিল। তবে একজন পথিকের মোবাইল ফোনে ধারণ করা চিত্রে দেখা যাচ্ছে পুলিশকে সে বলছে সে শ্বাস নিতে পারছে না। সেলফোনের ঐ ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে শ্বেতাঙ্গ পুলিশটি ফ্লয়েডের গলার উপর হাঁটু গেড়ে বসে ছিল। ফ্লয়েডের হাত ও বাঁধা ছিল।

ফ্লয়েডের মৃত্যুর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ নিউ ইয়র্ক সিটি সহ যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য শহরেও ছড়িয়ে পড়ে। কলোর‌্যাডোর ডেনভারে রাজ্য সংসদের কাছে একটি প্রতিবাদ বিক্ষোভে বন্দুকের গুলির আওয়াজ শোনা যায়। টুইটারে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে দেখা গেছে যে একটি এসইউভি গাড়ি ভিড়ের মধ্যে দিয়ে চালিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় এবং একজন বিক্ষোভকারী পড়ে যায়।

এদিকে মিনিয়াপলিসের ‍পুলিশ বিভাগ ফ্লয়েডের গ্রেপ্তারে সঙ্গে সম্পৃক্ত চার জন পুলিশের সকলকেই বরখাস্ত করেছে। মিনিয়াপলিস পুলিশ এবং হেনেপিন কাউন্টির অ্যাটর্নি দপ্তরের সঙ্গে, এফবিআইও এই তদন্তে যুক্ত হয়েছে। বিচার বিভাগ বলছে ঘটনার তদন্ত অগ্রাধিকার পাবে। ঐ শহরের পুলিশ ইউনিয়ন দ্রুত সিদ্ধান্তে পৌছে পুলিশকে নিন্দে জানানোর আগে জনগণকে তদন্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বলে।

XS
SM
MD
LG