অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মিনিয়াপলিসে প্রতিবাদকারীদের উদ্দেশ্যই হচ্ছে দায়িত্বজ্ঞানহীন ক্ষতি সাধনঃ টিম ওয়াল্জ


মিনেসোটার গভর্ণর টিম ওয়াল্জ আজ বলেছেন যে মিনিয়াপলিসে প্রতিবাদকারীদের উদ্দেশ্যই হচ্ছে দায়িত্বজ্ঞানহীন ক্ষতি সাধন। বিক্ষোভকারীরা সোমবার রাতে জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে যখন একজন শ্বেতাঙ্গ পুলিশ তাকে আটকে রেখে তার গলার উপর পা দিয়ে চাপ দেয় এবং অভিযোগ হচ্ছে তাকে হত্যা করে। তারপর থেকে গোটা যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিবাদ বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। ঐ দৃশ্যটি গোটা বিশ্বকে ক্ষুব্ধ করেছে। গভর্ণর ওয়ালজ বলছেন মিনিয়াপলিসের বিক্ষোভ শোক প্রকাশের জন্য নয়, এ হচ্ছে সম্পুর্ণ বিশৃঙ্খলা।

মিনিয়াপলিসে প্রতিবাদকারীরা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও গাড়ি পুড়িয়েছে এবং অন্তত একটি থানায় অগ্নিসংযোগ করেছে। মিনিয়াপলিস এবং সেন্ট পল এই জোড়া শহরে কমপক্ষে ৫০০ জন ন্যাশনাল গার্ড এরই মধ্যে মোতায়েন করা হয়েছে এবং রোববার নাগাদ ঐ অঞ্চলে আরও ১৭০০ ‘র ও বেশি ন্যাশনাল গার্ড মোতায়েন করা হবে বলে ন্যাশনাল গার্ডের মেজর জেনারেল জন জেনসেন জানিয়েছেন। মিনিয়াপলিসে গতরাতের কারফিউ অমান্য করে বিক্ষোভকারীরা রাস্তায় নেমে পড়ে। পুলিশ লোকজনকে ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করে।

অরেগন অঙ্গরাজ্যের পোর্টল্যান্ডে ফ্লয়েডের মৃত্যুর প্রতিবাদে একটি শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কয়েক ঘন্টার মধ্যেই সহিংস রূপ নেয় যখন বিক্ষোভকারীরা সেখানকার পুলিশ সদর দপ্তরে প্রবেশ করে অগ্নি সংযোগ করে। এসোসিয়েটেড প্রেসের রিপোর্টে বলা হয়েছে বিক্ষোভকারীরা দোকানপাটে লুঠতরাজ চালায়, অগ্নিসংযোগ করে এবং পুলিশের উপর পাথর ছুড়ে মারে। পুলিশ এই ঘটনার পরিবর্তনকে টুইটারে দাঙ্গা বলে বর্ণনা করেছে। রাজধানী ওয়াশিংটনে গতকাল হোয়াইট হাউজের সামনে লাফায়েত পার্কে বিক্ষোভকারীরা সমবেত হলে কর্মকর্তারা ভবনটি লক ডাউন করেন। সংবাদদাতারা বলছেন কোন কোন বিক্ষোভকারী কাছের একটি ভবনের দেয়ালে স্প্রে করে প্রতিবাদের লেখা লেখে এবং গোয়েন্দা বিভাগের লোকজনের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।

নিউ ইয়র্কেও গতকাল দ্বিতীয় দিনের মতো ফ্লয়েডের মৃত্যুর প্রতিবাদে লোকজন রাস্তায় নেমে আসে। লস এঞ্জিলিসে বিক্ষোভকারীরা দোকানের জানালা ভাংচুর করে এবং একটি মহাসড়কে প্রতিবন্ধকতা নির্মাণ করলে পুলিশ সেখানে সব রকমের সমাবেশ বে আইনি ঘোষণা করে। জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের আটলান্টায় সি এন এন এর সদর দপ্তরের বাইরে শত শত বিক্ষোবভকারীর সঙ্গে পুলিশের সংঘাত হয়।

এ দিকে মিনিয়াপলিসের বরখাস্ত পুলিশ ডেরেক চেভিনকে এরই মধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। চেভিন ফ্লয়েডকে শ্বাসরুদ্ধ করে রাখে। অভিযোগ হচ্ছে সেই কারণে এই কৃষ্ণাঙ্গ লোকটি মারা যায়।

XS
SM
MD
LG