অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

ভারতে লকডাউনের মেয়াদ ৩০শে এপ্রিল পর্যন্ত বাড়বে


ভারতের সর্বত্র লকডাউনের মেয়াদ ৩০শে এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হচ্ছে। আগামীকাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সরকারি ভাবে এ কথা ঘোষণা করবেন। তার আগে আজ বিকেলে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নবান্নে সাংবাদিকদের ডেকে জানিয়ে দিলেন যে, রাজ্যে ৩০শে এপ্রিলের আগে লকডাউন তোলা হবে না। তিনি বলেন, আসছে সপ্তাহে বাঙালির প্রিয় উৎসব নববর্ষ, সেই উপলক্ষে সকলকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। তবে এবার পয়লা বৈশাখ সকলে বাড়িতে বসেই উদযাপন করতে হবে। মুখ্যমন্ত্রী জানান, করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে, তবে বেশ কিছু রোগী ভালো হয়েও ঘরে ফিরছেন। তাই আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই, করোনা সংক্রান্ত বিধিনিয়মগুলো ঠিক ভাবে মেনে চললে সংক্রমণের আশঙ্কা কম। যেমন নিতান্ত প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বেরোবেন না, এক জায়গায় বেশি লোক জড়ো হবেন না, হাত ধোয়া, নাকমুখ ঢাকা ইত্যাদি তো আছেই। কেউ যাতে ভুয়ো খবর না ছড়ান তার জন্য মুখ্যমন্ত্রী বারবার সংবাদ মাধ্যমের কাছে আবেদন জানান।

প্রধানমন্ত্রী মোদী আজ করোনা মোকাবিলায় কী কী করা যায় সে ব্যাপারে আলোচনা করার জন্য সারা দেশের বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করেন। সেখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ বেশির ভাগ মুখ্যমন্ত্রীই এখনই লকডাউন তুলে না নিতে মোদীর কাছে আবেদন জানান। তাঁরা বলছেন এখনই এক সঙ্গে লকডাউন তুলে নিলে এর থেকে যেটুকু সুফল পাওয়া গিয়েছে তাও বিফল হয়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রী নিজেও তাই চাইছেন। মুখ্যমন্ত্রীদের তিনি বলেছেন, আপনাদের কারও কিছু বলার থাকলে কিংবা কিছু প্রশ্ন থাকলে, পরামর্শ দিতে চাইলে জানবেন আমার টেলিফোন সব সময় খোলা থাকে। যখন খুশি আমাকে ফোন করতে পারেন অথবা মেসেজ করে দিতে পারেন। ওদিকে আগামীকাল দেশজুড়ে লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর ঘোষণার আগেই আজ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক থেকে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য প্রশাসনকে চিঠি দিয়ে বলা হয়েছে, রাজ্যের বেশ কিছু জায়গায় এবং কলকাতার কয়েকটি এলাকায় লকডাউন বিধিনিষেধ অমান্য করা হচ্ছে বলে তাঁরা জানতে পেরেছেন। মুর্শিদাবাদের একটি মসজিদে গতকাল জুম্মাবারের নামাজ পড়তে বহু লোকের জমায়েত হয়েছিল। পুলিশ খবর পেয়ে তাদের সরিয়ে দেয়। কিন্তু বহু জায়গাতেই এরকম হয়ে চলেছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের চিঠিতে বিশেষ করে কলকাতায় মানিকতলা, রাজাবাজার, খিদিরপুর, ওয়াটগঞ্জ, মোমিনপুর, গার্ডেনরিচ, মেটিয়াবুরুজ, ইত্যাদি জায়গার নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

XS
SM
MD
LG