অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

মহারাষ্ট্রে মালগাড়ির চাপায় ১৬ জন শ্রমিক নিহত


ভারতে মহারাষ্ট্রের ঔরঙ্গাবাদে আজ সকালে একটি মালগাড়ি রেললাইনের ওপর ঘুমন্ত শ্রমিকদের পিষে দিয়ে চলে গিয়েছে। ১৬ জন শ্রমিক প্রাণ হারিয়েছেন, ৫ জন গুরুতর আহত। করোনা ভাইরাসের কারণে সারা ভারতে লকডাউনের জন্য গত দেড় মাস ধরে এইসব পরিযায়ী শ্রমিক তাঁদের কর্মস্থানে আটকে পড়েছেন। তাঁদের হাতে টাকা নেই, থাকার জায়গা নেই, কারণ ভাড়া দিতে পারছেন না, খাবার দাবারও যোগাড় করতে পারছেন না নিয়মিত। তাই মরিয়া হয়েই তারা কেউ একা, কেউ পরিবারসহ, কেউ কেউ সদলবলে তাঁদের কর্মস্থল থেকে গ্রামে ফেরার মরিয়া চেষ্টা করছেন। ট্রেন বা বাস চলছে না, তাঁদের জন্য তেমন ব্যবস্থাও করা হচ্ছে না, সেই জন্য বেশিরভাগ সময়ই তাঁদের হেঁটে যেতে হচ্ছে। হাজারখানেক কিলোমিটার হেঁটে চলেছেন এবং অনেকেই সেই পথশ্রম সহ্য করতে না পেরে রাস্তায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ছেন, কেউ কেউ মারাও যাচ্ছেন। গতকাল ঔরঙ্গাবাদের কিছু শ্রমিক সুদূর মধ্যপ্রদেশে তাঁদের গ্রামের বাড়িতে যাওয়ার জন্য রওনা হয়েছিলেন। সাড়ে আটশো কিলোমিটার দূরে তাঁদের গ্রাম, রেললাইন দিয়ে গেলে রাস্তা কম হবে বলে সেই রাস্তাই তাঁরা বেছে নিয়েছিলেন। বেশ খানিকক্ষণ হাঁটার পর খুব ক্লান্ত হয়ে রেললাইনের উপরেই তাঁরা বিশ্রাম নিতে বসেন, কিছুক্ষণ পরে সেখানেই ঘুমে ঢলে পড়েন। সকালবেলা ঐ লাইনে একটি মালগাড়ি আসছিল, সেটির চালক ঐ ঘুমন্ত শ্রমিকদের দেখতে পাননি। যখন দেখেছেন তখন শেষ রক্ষা হয়নি। ১৬ জন শ্রমিক ঐখানেই মালগাড়ির চাকায় পিষ্ট হয়ে মারা গিয়েছেন। ৫ জনকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। এই ভয়াবহ দুর্ঘটনা আরো একবার চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল যে পরিযায়ী শ্রমিকরা কতখানি মরিয়া হয়ে এক জায়গা থেকে আর এক জায়গায় যাওয়ার চেষ্টা করছেন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছেন, এই ঘটনায় তিনি মর্মাহত। রেলমন্ত্রক প্রত্যেক বারের মতো এই ঘটনারও রুটিন একটা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী বলেছেন, তড়িঘড়ি কোনও সময় না দিয়ে লকডাউন ডাকার করুণ পরিণতি সম্পর্কে আগেই সরকারের ভাবা উচিত ছিল। তা করেনি বলেই আজ এই নিরীহ শ্রমিকদের এভাবে প্রাণ দিতে হচ্ছে। এই সব পরিযায়ী শ্রমিকই সারাদেশের উৎপাদনের চাকা বা নির্মাণের চাকা সচল রাখেন। তাঁদের দেশের এক প্রান্ত থেকে আর এক প্রান্তে গিয়ে কাজ করতে হয়, কারণ নিজের রাজ্যে হয়তো তাঁদের জানা কাজ সব সময় জোটে না।

please wait

No media source currently available

0:00 0:02:20 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG