অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

দেশের সম্মান বজায় রাখতে যথোচিত উত্তর দিতে পিছপা হবো না-নরেন্দ্র মোদী


ভারত ও চিনের মধ্যে সীমান্ত সংঘর্ষ নিয়ে দীর্ঘদিন চুপ করে থাকার পর বিরোধীরা যখন প্রধানমন্ত্রীর অথবা প্রতিরক্ষামন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিদেশমন্ত্রীর বিবৃতি দাবি করছে, ঠিক সেই সময় গতকাল দুই দেশের সীমান্ত সংঘর্ষে ভারতের ২০ জন এবং চিনের অন্তত ৪০ সেনা প্রাণ হারিয়েছেন। এই অবস্থা নিয়ে আলোচনার জন্য আজই প্রধানমন্ত্রী সর্বদলীয় একটি বৈঠক ডেকেছেন, আগামী শুক্রবার বিকেল পাঁচটায়। আজ দুপুরে ছিল পূর্বঘোষিত ভিডিও কনফারেন্স রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর। তার ঠিক শুরুতে প্রধানমন্ত্রী একটি বিবৃতি দেন, তার পর নিহত সেনা জওয়ানদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করতে দুমিনিট সবাই মিলে নীরবতা পালন করেন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, ভারত চিরকাল তার অখণ্ডতা ও সার্বভৌমত্বকে মর্যাদা দিয়ে এসেছে। ভারত শান্তিপ্রিয় দেশ, কিন্তু দরকার হলে আমাদের দেশের সম্মান বজায় রাখতে আমরা যথোচিত উত্তর দিতে পিছপা হবো না। আজকে দেশবাসীকে আমি আশ্বস্ত করতে চাই এই বলে যে, আমাদের জওয়ানদের এই আত্মত্যাগ বিফলে যাবে না‌। আজ সকালে একই সুরে চিনা বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র বলেছেন যে, চিন শান্তি চায়, কিন্তু ভারত যদি অশান্তি করে তা হলে যোগ্য জবাব দিতে আমরা ছাড়বো না। সব মিলিয়ে দু'পক্ষেই বেশ একটা টানটন উত্তেজনার ভাব রয়েছে। কালকের পর আজ সকালেও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং সবশেষ পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্য আর এক দফা বৈঠক করেন সামরিক বাহিনীর তিন প্রধানকে নিয়ে। বৈঠকে চিফ অফ দ্য ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াতও ছিলেন। সামরিক সূত্রে জানা গিয়েছে, চিনের মতিগতি যেহেতু সুবিধার ঠেকছে না, তাই যে কোনও পরিস্থিতির জন্য সেনাবাহিনী যেন তৈরি থাকে, এমন একটা ইঙ্গিত দেওয়া রয়েছে। ভারতের সেনাবাহিনী লাদাখে এবং অন্যান্য আরও কয়েকটি জায়গায় যেখানে চিনা সৈন্যের মুখোমুখি, সেখানে ভারী অস্ত্রশস্ত্র, কামান, তাঁবু, ইত্যাদি নিয়ে গিয়ে ঘাঁটি গেড়ে বসছে। তাদের বলা হয়েছে, তেমন পরিস্থিতি দেখা দিলে তারাই যেন প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেয়, কী করা হবে। ভারতীয় ও চিনা সেনাবাহিনীর মুখোমুখি লড়াইয়ে গতকালই জানা গিয়েছিল যে, ভারতের কুড়ি জন সেনা প্রাণ হারিয়েছেন। আর ভারতের হিসেবমতে চিনের সেনাদের মৃত্যু সংখ্যা ৪৩। ওদিকে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সূত্রে খবর, চিনের অন্তত ৩৫ জন সৈন্য মারা গিয়েছে। আজ কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে কোভিদ পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলার জন্য ফোন করেছিলেন। সেই সময় তাঁদের মধ্যে সীমান্তে চিনের এই গাজোয়ারি মনোভাব নিয়েও কথা হয়েছে।

দীপংকর চক্রবর্তী, ভয়েস অফ আমেরিকা, কলকাতা

please wait

No media source currently available

0:00 0:03:06 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG