অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

গত চার দশকে ভারত এই প্রথম মারাত্মক মন্দার মুখে


ভারত কয়েক দশকের মধ্যে এই প্রথম গুরুতর অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তাজনিত চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হয়েছে। কভিড ১৯ মহামারি দেশটিকে মারাত্মক মন্দায় ফেলেছে এবং অমীমাংসিত হিমালয় সীমান্তে চীনের সঙ্গে সামরিক অচলাবস্থা, তার এই শক্তিশালী প্রতিবেশির সঙ্গে সম্পর্ককে বিচ্যূত করেছে। মার্চ মাসে ভারতে খুব কড়া লক ডাউন আরোপ করা হয় যখন মাত্র কয়েকশ লোক করোনায় আক্রান্ত হয়েছিল, কিন্তু দেশটি আস্তে আস্তে স্বাভাবিক হবার সময় থেকে এই ভাইরাস মারাত্মক সংক্রমণ ঘটাতে থাকে। আর এই বছরের শেষ নাগাদ এখন ভারত হচ্ছে বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বাধিক সংক্রমিত দেশ। তবে ভারতে এখন যখন লক্ষ লক্ষ লোক চাকরি হারাচ্ছেন, শত শত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে তখন বিশ্লেষকরা সতর্ক করে দিচ্ছেন যে ঐ মহামারির চাইতেও, অর্থনৈতিক ক্ষতি মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে।

এপ্রিল মাসে প্রথম সমস্যা দেখা দেয় যখন বিরাট সংখ্যক অভিবাসী শ্রমিক কোন রকম চাকরি ছাড়াই শহরগুলোতে আটকে পড়ে এবং যানবাহন বন্ধ থাকায় অনেকে হেঁটে শত শত কিলোমিটার পথ পাড়ি দেয়। বিশ্লেষকরা বলছেন, বর্তমান বিশ্বে ভারত হচ্ছে অর্থনৈতিক দিক দিয়ে সব চেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশ কারণ তার জনশক্তির ৯০ শতাংশই দেশের অনানুষ্ঠানিক ক্ষেত্রগুলোতে কাজ করে থাকে। বলা হচ্ছে, গত চার দশকের মধ্যে ভারত এবার মারাত্মক অর্থনৈতিক মন্দার মধ্যে পড়েছে কারণ এ বছর ভারতের অর্থনীতি ৯ শতাংশ কমে আসবে। সরকার যদিও দুটি প্রণোদনা প্যাকেজের কথা বলেছে ভারতের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীথারামন শিল্পপতিদের বলেছেন যে, কোন ভাবেই সরকারি হস্তক্ষেপ এই সংকট এড়াতে পারবে না।

XS
SM
MD
LG