অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রোহিঙ্গা বিতাড়নের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক উদ্বেগ ও প্রতিবাদ ক্রমশই বাড়ছে


জাতিসংঘ জানাচ্ছে মিয়ান্মারে প্রায় তিন লক্ষ রোহিঙ্গা তাদের ঘর বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে। এ দিকে এই ঘটনার পরিপ্রক্ষিতে , গোটা বিশ্ব জুড়ে এই সংকটের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ হয়েছে। এমন কী খোদ দালাই লামা এবং দক্ষিণ আফ্রিকার অধিকার বিষয়ক নেতা ডেসমন্ড টুটু , সংখ্যা লঘু মুসলমানদের প্রতি সদ্ব্যহারের আহ্বান জানিয়েছেন।

বাংলাদেশে গণজাগরণ মঞ্চ রোহিঙ্গাদের অধিকার সংরক্ষণের দাবি এবং তাদের প্রতি মানবিক আচরনের দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে। জাকার্তায় শুক্রবার আল্লাহ আকবর ধ্বনি দিয়ে মিয়ান্মার সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানো হয়। আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলের হেরাত প্রদেশে বিক্ষোভকারিরা রোহিঙ্গাদের প্রতি সহিংসতার পরিসমাপ্তি চান এবং ইসলামাবাদে মিয়ান্মারের নেত্রী আওন সান সূ চি’র ছবি পদদলিত করা হয়।

তিব্বতের ধর্মীয় নেতা দালাই লামা বলেছেন যে সব লোক মুসলমানদের হয়রানির সম্মুখীন করেছে তাদের এই মূহুর্তে গৌতম বুদ্ধকে স্মরণ করা উচিৎ। তিনি বলেন , তাঁর বিশ্বাস বুদ্ধ এই সব দরিদ্র মুসলমানদের সহায়তায় এগিয়ে আসতেন। গতকাল দক্ষিণ আফ্রিকার বিশপ টুটু , সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি চিঠি প্রকাশ করেন যেখানে তিনি তাঁর মতোই নোবেল পুরস্কার প্রাপ্ত আওন সান সু চি ‘র প্রতি আহ্বান জানান যে সূচি যেন রোহিঙ্গাদের পক্ষে কথা বলেন , কথা বলেন ন্যায় বিচার ও মানবাধিকারের পক্ষে।

মিয়ানমার সরকার রোহি্ঙ্গাদের নাগনিক হিসেবে নয় অর্থনৈতিক অভিবাসি হিসেব দেখে, যদিও রোহিঙ্গা পরিবারগুলো কয়েক প্রজন্ম ধরে সেখানে বসবাস করছে। তবে এ সপ্তায় আওন সান সুচি বলেছেন যে তাঁর সরকার রোহিঙ্গাদের অবস্থার উন্নতির জন্য জাতিসংঘ প্রস্তাবিত পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করবে।

XS
SM
MD
LG