অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

তিন বৃটিশ কিশোরীর আইএসে যোগ দিতে সিরিয়ায় যাওয়ার খবরে স্তম্ভিত বৃটেনবাসী


তিন বৃটিশ কিশোরীর আইএসে যোগ দিতে সিরিয়ায় যাওয়া এবং তাদের একজনের নিহত হওয়ার খবরে স্তম্ভিত বৃটেনবাসী। বৃটিশদের মধ্যে থেকে এ পর্যন্ত আটশয়েরও বেশী আইসিসে যোগ দিয়েছে বলে জানা গেছে।

নিহত কিশোরী খাদিজা সুলতানা বাংলাদেশী বংশদ্ভুত। তার বয়স ১৭। তার অপর দুই সঙ্গী আমিরা ও শামীমা বেগমের বয়স মাত্র ১৫। খাদিজার পরিবারের আইনজীবী তাসনিম আকুঞ্জি বলেছেন, তিনি মনে করেন কয়েক সপ্তাহ আগে খাদিজা মারা গেছেন। এদিকে বৃটিশ পররাষ্ট্র দপ্তর বলেছে, তারা এখনও তার মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত নয়। পূর্ব লন্ডনের বেথনাল গ্রিনের এই তিন কিশোরী এ লেভেল পড়া ফেলে আইসিস যোদ্ধাদের বিয়ে করে তাদের সহযোদ্ধা হওয়ার পরিকল্পনাতেই বৃটেন থেকে পালায়। সেখানে তারা বিয়েও করেছে বলে ধারণা করা হয়। এর মধ্যে নিহত খাদিজার স্বামী সোমালি বংশদ্ভুত একজন মার্কিন। তিনি গত বছরের শেষাশেষি নিহত হন। লন্ডন ভিত্তিক আইটিভি অবশ্য দাবি করেছে যে, নিহত খাদিজা সুলতানা বিপথগামী হওয়ার ভুল বুঝতে পেরে তুরস্ক হয়ে পুনরায় বৃটেনে ফিরতে তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে চলছিল। খাদিজার সঙ্গে তার বড় বোন হালিমার কথা হয়। সে তখন বলছিল, আমার ভালো লাগছে না, বড় ভয় করছে। মনে হয় আর কখনও ফিরতে পারবো না।

উল্লেখ্য যে, এই তিন কিশোরীকে ফিরিয়ে আনতে তাদের প্রত্যেকের পরিবার ইস্তানবুলেও ছুটে গিয়েছিল। বিষয়টি নিয়ে বিস্তিরিত শুনুন লন্ডন থেকে মতিউর রহমান চৌধুরীর পাঠানো রিপোর্টে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:00:58 0:00
সরাসরি লিংক

XS
SM
MD
LG