অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

 ইসরায়েলী-ফিলিস্তিনী পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘ জরুরী বৈঠক ডেকেছে


Palestinians run from tear gas thrown by Israeli police officers outside Jerusalem's Old City, July 21, 2017. Israel police severely restricted Muslim access to a contested shrine in Jerusalem's Old City Friday to prevent protests over the installation o

সম্প্রতি ইসরায়েলী ও ফিলিস্তিনীদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়া ব্যাপক লড়াই-এর পরিপ্রেক্ষিতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ সোমবার জরুরী বৈঠক ডেকেছে। রবিবার ইসরায়েল কমপক্ষে ২৫ জনকে গ্রেফতারের কথা জানিয়েছে যাদের মধ্যে হামাস জঙ্গি গোষ্ঠীর সদস্য আছে বলে তারা মনে করছে যারা কদিন আগের সংঘর্ষে অংশ নিয়েছিল।

শনিবার দিনের শেষ ভাগে মুসলমানদের পবিত্র স্থান হারাম আল শরিফে প্রবেশে বাধার দেবার পর এর বাইরে নামাজ পড়েন মুসলমানরা। এর পর সংর্ঘষ ছড়িয়ে পড়ে।ঐ স্থানটি ইহুদিদের জন্যও পবিত্র স্থান যাকে তারা ”টেম্পল মাউন্ড” বলে। হারাম আল-শরিফ এর প্রবেশ পথে মেটাল ডিটেক্টর বসানো হয়েছে।

ইসরায়েলী সামরিক প্রধান যিনি ফিলিস্তিনী বেসামরিক মানুষের নিরাপত্তার বিষয়টি দেখভাল করেন, তিনি বলেছেন দুই ইসরায়েলী পুলিশ নিহত হবার পর যে নিরাপত্তা গেট বসানো হয়েছে তার বিকল্প নিয়ে আলোচনা করতে তারা রাজী আছে। মেজর জেনারেল ইয়োভমোডচাই আরো বলেন, আমরা শুধুমাত্র নিশ্চিত করতে চাই যে আবারো কেউ কোন ধরনের অস্ত্র নিয়ে যেন এখানে ঢুকে কোন আক্রমণ চালাতে না পারে।

রবিবার জেরুজালেমে ইসলামিক ইনস্টিটিউশন এক বিবৃতিতে বলেছে তারা সব ধরনের দখলদারিত্ব এবং ইলেক্ট্রটিক গেইট স্থাপন প্রত্যাখ্যান করছে। ইসরায়েলী প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ইসরায়েলী পরিবারের ওপর হামলার নিন্দা জানিয়েছেন। অন্যদিকে শুক্রবার ফিলিন্তিনি প্রধানমন্ত্রী মাহমুদ আব্বাস ঘোষণা করেছেন যে তিনি পবিত্র স্থান থেকে মেটাল ডিটেক্টর না সরানো পর্যন্ত ইসরাইলের সাথে সম্পর্ক স্থগিত রাখবেন।

XS
SM
MD
LG