অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

আইনতভাবে অভিযোগ প্রকাশ করার ক্ষমতা ছিলনা - জোসেফ ম্যাগুয়াইর


বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদের গোয়েন্দা কমিটির কাছে সাক্ষ্য দিয়েছেন গোয়েন্দা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জোসেফ ম্যাগুয়াইর। সেখানে তিনি বলেছেন তিনি আইন ও নিয়ম নীতি মেনেই কাজ করেছেন। ম্যাগুয়াইর আরও বলেন, তার আইনগতভাবে সেই ক্ষমতা ছিলোনা যে তিনি ঐ অভিযোগ প্রকাশ করবেন।

জোসেফ ম্যাগুয়াইর সাক্ষ্য দেবার আগে ঐ অভিযোগকারীর অভিযোগ প্রকাশ করা হয়।ঐ অভিযোগকারী বলেন, আমি আমার দায়িত্ব পালনের সময় সরকারের বিভিন্ন কর্মকর্তাদের কাছ থেকে তথ্য পেয়েছি যে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের ক্ষমতা ব্যবহার করে অন্যান্য দেশগুলোর কাছ থেকে ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপের অনুরোধ করেছেন।সেই অভিযোগে আরো বলা হয় যে এই প্রয়াসের মুল কেন্দ্রে ছিলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ব্যক্তিগত আইনজীবী রুডী জুলিয়ানি। এটর্নি জেনারেল ওয়িলিয়াম বারের কথা উল্লেখ করে বলা হয়, ‘খুব সম্ভবত তিনিও জড়িত ছিলেন’। ঐ অভিযোগে আরও বলা হয় হোয়াইট হাউস ঐ তথ্য জনসম্মুখে প্রকাশ হওয়া থেকে আটকে রাখে।

অভিযোগ মোতাবেক, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির যেলেন্সকির ফোনালাপে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ব্যক্তিগত স্বার্থের জন্য কর্মক্ষেত্রকে ব্যবহার করার বিষয়টিতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তারা। তারা এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে বলেছেন, এই অভিযোগে কোনও অসঙ্গতি প্রকাশ পাওয়া যায় না।

বৃহস্পতিবারের শুনানিতে কমিটির চেয়ারম্যান ডেমোক্র্যাট দলের অ্যাডাম শিফ বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন তার স্পষ্ট প্রমাণ মিলেছে। শিফ বলেন,ফোনালাপে বোঝা যায় ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট তোষামোদ করছিলেন।

তবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ফোনালাপের বিষয়ে বলেন তিনি কোনও দোষ করেননি।অভিযোগ প্রকাশিত হবার পরপরই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প টুইটারে লেখেন, ‘ ডেমোক্র্যাট রিপাবলিকান দলকে ধ্বংস করতে চাইছে’। তিনি আরও লেখেন, ‘ আমাদের দেশ সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে, কঠোর লড়াইয়ের প্রয়োজন এখন।

মনে করা হচ্ছে, এক রুদ্ধদার বৈঠকে সেনেট গোয়েন্দা কমিটির সদস্যদের সঙ্গেও কথা বলবেন ম্যাগুয়াইর। এর আগে গোয়েন্দা কমিটির কিছু আইনপ্রনেতাদের গোপন তথ্য ফাসের অভিযোগটি দেখতে দেয়া হয়।

অভিযোগটি নিজেদের দলের নীতি অনুযায়ী মূল্যায়ন করা হয়। ডেমোক্র্যাট দল এই অভিযোগকে জঘন্য বলে আখ্যা দিয়েছে। রিপাবলিকান দল বলেছে এতে ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট পদের জন্য উদ্বেগের কারণ নেই।

এর আগে, ডেমোক্র্যাট হাউসের সদস্য এবং গোয়েন্দা কমিটির চেয়ারম্যান, অ্যাডাম শিফ অভিযোগটি দেখার পর সংবাদ্দাতাদের সঙ্গে কথা বলেন। তিনি বলেন, অভিযোগটি অত্যন্ত উদ্বেগজনক। আমার কাছে বিশ্বাসযোগ্য মনে হয়েছে। সম্পূর্ণ বিশ্লেষণ ছাড়াই আমি বুঝতে পারছি ইন্সপেক্টর জেনারেল কেন মনে করেছেন অভিযোগটি বিশ্বাসযোগ্য।অভিযোগটি অত্যন্ত সুস্পষ্ট করে লেখা হয়েছে। এবং সেই অভিযোগে অন্যান্য সাক্ষী এবং প্রয়োজনীয় নথিপত্রের তথ্য দেয়া হয়েছে যাতে কমিটি খতিয়ে দেখতে পারে। আমরা জানি আমাদের এখন কি কর্তব্য। এবং আমি ধন্যবাদ জানাই অভিযোগকারীকে। তিনি সাহসের পরিচয় দিয়েছেন এই কর্মকাণ্ডগুলোকে সবার সামনে এনে। তবে অত্যন্ত আশ্চর্যজনক ব্যপার যে এত গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগ এভাবে চাপা দিয়ে রাখা হয়েছিল। কমিটির কাছ থেকে এটি লুকিয়ে রাখার কোনও মানে আমি দেখিনা।

রিপাবলিকানদের ধারণা, এই অভিযোগ, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট পদের কোনও ক্ষতি করবেনা। ট্রাম্পের মিত্র লিন্ডসি গ্র্যাহাম দৃঢ়তার সঙ্গেই বলছেন, ঐ অভিযোগে তেমন কোনও তথ্য নেই। রিপাবলিকান সেনেটর লিন্ডসি গ্র্যাহাম বলেন, আমার কাছে খুবই হাস্যকর মনে হচ্ছে যে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ইউক্রেইনকে হুমকি দিয়েছে যে তারা যদি তাকে রাজনৈতিক সুবিধা প্রদান না করে তাহলে তিনি সহায়তা বন্ধ করে দেবেন।

গোয়েন্দা কমিটির রিপবালিকান দলের সদস্য, নেব্রাস্কার সেনেটর বেন স্যাস সংবাদ্দাতাদের বলেন, তিনি অভিযোগে অনেক সমস্যা লক্ষ্য করেছেন।এবং অভিশংসনের বিষয়ে যেকোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছনোর আগে ডেমোক্র্যাটদের সতর্ক করে দেন।

গত সপ্তাহে এই বিতর্কের আবির্ভাব ঘটে যখন একটি প্রতিবেদনে বলা হয় একজন অজ্ঞাত অভিযোগকারী ট্রাম্প প্রশাসনের বেশ কিছু কার্যকলাপের বিষয়ে শঙ্কিত হয়ে তথ্য দিয়েছেন, যার মধ্যে রয়েছে জুলাই মাসে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এবং ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির যেলেন্সকির মধ্যে টেলিফোন আলাপ।

অভিযোগকারী গোয়েন্দা বিভাগের মহাপরিদর্শককে এই বিষয়টি অবহিত করার পর, তিনি জানান বিষয়টি গুরুতর এবং জরুরী।



XS
SM
MD
LG