অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

কলকাতা হাইকোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি গ্রেপ্তার


কলকাতা হাইকোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি সি.এস কারনানের অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের আবেদন আজ খারিজ করে দিল দেশের শীর্ষ আদালত সুপ্রীম কোর্ট। এছাড়া ছ মাসের জেল হেফাজতের নির্দেশও বহাল রাখা হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের সাত জন বিচারক নিয়ে গঠিত এক বেঞ্চ আজ এই নির্দেশ দিয়েছে।

উল্লেখ করা যেতে পারে গতকাল মঙ্গলবার ভারতীয় সময় রাতের দিকে দক্ষিণ ভারতের তামিলনাড়ুর কোয়েম্বত্তুরের এক গেস্টহাউস থেকে সি এস কারনানকে গ্রেফতার করে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ। আজই তাঁকে চেন্নাই হয়ে কলকাতায় নিয়ে আসা হচ্ছে। এডিজি (সিআইডি) রাজেশ কুমার সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন কলকাতায় আনার পর প্রাক্তন বিচারপতিকে প্রেসিডেন্সি জেলে রাখা হবে। তাঁর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ রয়েছে।

প্রসঙ্গত বলা যেতে পারে গত আটই মে সুপ্রিম কোর্টের কুড়ি জন বিচারপতির বিরুদ্ধে কারনান দুর্নীতির অভিযোগ এনেছিলেন। তারপর সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি-সহ সাত বিচারপতিকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দেন বিচারপতি সি এস কারনান।তারই পরি প্রেক্ষিতেই পরের দিন অর্থাৎ গত নয়ই মে তাঁকে আদালত অবমাননার দায়ে দোষী সাব্যস্ত করে ছ মাসের জেলহাজতের নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। তাঁকে অবিলম্বে গ্রেফতারির নির্দেশ দেয় দেশের শীর্ষ আদালত।একইসঙ্গে কারনানের বক্তব্য প্রকাশ্যে না আনার জন্য সংবাদমাধ্যমকেও নির্দেশ দেয় সর্বোচ্চ আদালত এবং বেঞ্চ জানায় বিচারপতি সি এস কারনানকে যদি জেলে পাঠানো না হয়, তাহলে সাধারণ মানুষের কাছে ভুল বার্তা যাবে।এরপরই গতকাল গোপন সূত্রে খবর পেয়ে কোয়েম্বত্তুরের পোলাচি হাইরোডে মালুমিচামপট্টির এক গেস্ট হাউস থেকে গ্রেফতার করা হয় তাঁকে।

please wait

No media source currently available

0:00 0:00:50 0:00

XS
SM
MD
LG