অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

৫ টাকায় ভরপুর আহার: চালু হল ‘মা’ কিচেন


ভাত ডাল সবজি আর ডিমের তরকারি, সব মিলিয়ে একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের এক বেলার খিদে মেটানোর মতো খাবারের দাম মাত্র ৫ টাকা। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আজ এই জনতার রান্নাঘর বা 'মা' কিচেনের উদ্বোধন করলেন। আপাতত কলকাতা পুরসভার ১৬টি বরোর প্রতিটিতে একটি করে মা কিচেন খোলা হচ্ছে। এর পর কলকাতার ১৪৪টি ওয়ার্ডে, তার পর রাজ্যের মফস্বল শহরগুলোতে জনতার রান্নাঘর খুলবে। মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন, শহরে ও মফস্বল শহরে গরিব লোকেদের যাতে না খেয়ে থাকতে না হয় তার জন্য এই ব্যবস্থা। প্রতিদিন দুপুর একটা থেকে দুটো পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট রান্নাঘরে এই খাবার দেওয়া হবে।

এই ব্যবস্থা অবশ্য নতুন কিছু নয়, করোনা আবহে লকডাউনের সময় সিপিএম-এর পক্ষ থেকে পাড়ায় পাড়ায় 'শ্রমজীবী কিচেন' আর 'জনতার রান্নাঘর' খোলা হয়েছিল, যেখানে এক বেলার খাবার পাওয়া যেত কুড়ি টাকায়। সেটাও খুবই সস্তা ছিল। সাধারণ শ্রমজীবী মানুষ যাতে পেট ভরা খাবার খেতে পারেন, তার ব্যবস্থা করা হয়েছিল এভাবে। তার জন্য অনেকেই টাকা দিয়েছেন, তা ছাড়া পার্টি থেকে চাঁদা তুলে এর খরচ জোগানো হয়েছে। বলাবাহুল্য সরকারি কোনও সাহায্য সেখানে পাওয়া যায়নি। ভারতে সরকারি সাহায্যে প্রথম এই ধরনের রান্নাঘর খুলেছিলেন আট বছর আগে তামিলনাড়ুর তখনকার মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতা। সেখানে বলা হতো 'আম্মা' কিচেন, যার অর্থ 'মা'। সেখানে ১ টাকায় একটা ইডলি, ৩ টাকায় দই ভাত আর ৫ টাকায় সম্বর ভাত পাওয়া যেত। সেটা দেশেই শুধু নয়, আন্তর্জাতিক স্তরেও প্রশংসিত হয়েছিল। তার অনুসরণে পরে ওড়িশা, কর্ণাটক ও কেরালায় সস্তার রান্নাঘর চালু হয়। কলকাতায় আজ যে সামাজিক রান্নাঘর চালু হলো, তার নাম মমতা ব্যানার্জি দিয়েছেন 'মা', শুধুই 'মা'.. কিচেন শব্দটা সরকারিভাবে নামের পাশে থাকছে না।

সিপিএম বলেছে, ভোটের মুখে দাঁড়িয়ে এই ধরনের কর্মসূচি বোঝাই যাচ্ছে ভোট পাওয়ার জন্য। এর জন্য বাজেট বরাদ্দ করা হয়েছে ১০০ কোটি টাকা। আর গত তিন বছরে রাজ্যের সরকারি তহবিল থেকে ক্লাবগুলোকে খয়রাতি সাহায্য দেওয়া হয়েছে ২৬০ কোটি টাকা। তার মানে সরকার ইচ্ছে করলে তিন বছর আগেই এই ব্যবস্থা নিতে পারত। এমনকি লকডাউনেও রাজ্য সরকার কোনও গরিব লোকের খিদে মেটানোর ব্যবস্থা করেনি। তবে সাধারণ লোকেরা একে স্বাগত জানিয়ে বলছেন, ভালো কাজ দেরিতে হলেও ভালো।

please wait
Embed

No media source currently available

0:00 0:02:23 0:00
সরাসরি লিংক


XS
SM
MD
LG