অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে উভয় দেশের সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর পতাকা বৈঠক


মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশ বা বিজিপি দাবি করেছে, সীমান্তে সেনা মোতায়েন বিষয়ে তারা কিছুই জানেন না।বৃহস্পতিবার বান্দরবানের ঘুমধুম সীমান্তে

ব্যাটালিয়ন পর্যায়ের এক পতাকা বৈঠকে বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী- বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ

বা বিজিবির কাছে এমনটি দাবি করেন মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী- বিজিপি। বৈঠক শেষে

বিজিবি কক্সবাজার অঞ্চলের পরিচালক (অপারেশন) লে. কর্নেল সরকার মোহাম্মদ

মোস্তাফিজুর রহমান সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন। বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের ঘুমধুম

ফ্রেন্ডশীপ ব্রীজের পাশে বাংলাদেশের অংশে অনুষ্টিত হয় এই পতাকা বৈঠক। সকাল নয়টা থেকে

বৈঠক চলে বিকেল পৌনে তিনটা পর্যন্ত। আলোচনায় উঠে আসে সীমান্তের নানা প্রসঙ্গ।গুরুত্ব পায়

সীমান্তের আন্তর্জাতিক আইন মেনে চলার বিষয়। আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী সীমান্তে

ভবিষ্যতে কোন তৎপরতার আগে বাংলাদেশকে অবহিত করতে সম্মতি জানিয়েছে

মিয়ানমার প্রতিনিধি দল।

করোনা মহামারীর কারণে দীর্ঘ প্রায় ১০ মাস বন্ধ থাকার পর উত্তেজনাকর এক পরিস্থিতিতে

পুনরায় শুরু হয় পতাকা বৈঠক।বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন বর্ডার

গার্ড বাংলাদেশের প্রতিনিধি দল।পতাকা বৈঠকে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন

কক্সবাজার অঞ্চলের পরিচালক অপারেশন লে. কর্নেল সরকার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর

রহমান।মিয়ানমার প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন সেদেশের বর্ডার গার্ড পুলিশের

রিজিয়ন কমান্ডার চে নাইং উ।

please wait

No media source currently available

0:00 0:03:24 0:00


XS
SM
MD
LG