অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

বাংলাদেশে রাণা প্লাজা দুর্ঘটনার তিন বছরেও অনেক গার্মেন্টস কারখানাতে নিরাপদ ব্যবস্থা কার্যকর হয়নি


বাংলাদেশে রাণা প্লাজা ভেঙ্গে পড়ে ১১শোরও বেশী মানুষের নির্মম মৃত্যুর পর বিদেশী ক্রেতারা যে বাংলাদেশ চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল, তারপর তিন বছরেও সেখানে অনেক গার্মেন্টস কারখানাতেই এখনও সুষ্ঠু নিরাপদ ব্যবস্থা কার্যকর হয়নি।

এ বিষয়ে রোকেয়া হায়দারের সঙ্গে এক সাক্ষাতকারে যুক্তরাষ্ট্রের International Labor Rights Forum-র কর্মকর্তা লিয়ানা ফক্সভোগ বলেন বড় বড় প্রতিষ্ঠানের দায়িত্ব পালন নিশ্চিত করতে হবে।

আসুন শোনা যাক

সরাসরি লিংক

আজ অন্যতম গার্মেন্টস প্রতিষ্ঠান যারা বাংলাদেশ থেকে বিপুল পরিমাণে তৈরী পোশাক কিনে থাকে H & M, তাদের বৈঠক চলছে আর তারই প্রাক্কালে International Labor Rights Forum, Clean Clothes Campaign, Worker Rights Consortium, Solidarity Network তাদের সমীক্ষা প্রকাশ করেছে। International Labor Rights Forum-র কর্মকর্তা লিয়ানা ফক্সভোগ বলেন, আমরা, যে কোম্পানী বাংলাদেশের কাছ থেকে সবচাইতে বেশী তৈরী পোশাক কিনে থাকে তাদের কাজকর্মই পরিদর্শন করেছি। তিনি বলেন, ‘প্রথম যে বড় কোম্পানী বাংলাদেশ থেকে তৈরী পোশাক কেনা শুরু করে এইচ এ্যাণ্ড এম, তারা এখন অনেক নিরাপত্তা ব্যবস্থা কার্যকর করছে। তারা তিনবছর আগে বাংলাদেশ চুক্তি স্বাক্ষর করার পর এখন কি করছে সেটাই আমরা জরীপ করেছি। এইচ এ্যান্ড এম যে ২৫৫টি কারখানার সঙ্গে কাজ করছে, তাদের কোলাপসিবল গেট, জরুরী অবস্থায় বেরিয়ে যাওয়ার পথ সব পরিবর্তন করা হয়েছে। তবে এখনও ৬১% কারখানায়, কোন অগ্নিকাণ্ডের সময় এই জরুরী পথের ব্যবস্থা মেরামত করা হয়নি।’

অন্যসব নিরাপত্তা ব্যবস্থা, শ্রমিকদের পারিশ্রমিক, বেতন, নির্ধারিত কাজের সময় এ সম্পর্কে লিয়ানা বলেন, ‘হ্যাঁ, অগ্নিকাণ্ডের সময় বেরিয়ে যাওয়ার পথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা কিছুটা উন্নতি হয়েছে। অন্যান্য দরজা এবং গেটে তালা বন্ধ রাখা সেইসব দিকেও যথেষ্ট নজর দেওয়া হয়েছে। পারিশ্রমিক অবশ্য এখনও তেমন বাড়ানি হয়নি।’ তবে তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক চাপের এই অভিযানের ফলে এইচ এান্ড এম যে স্বচ্ছতা দেখিয়েছে তাকে সাধুবাদ জানাতে হয়। তার মতে যদিও অবস্থার উন্নতি হয়েছে তবে এখনও অনেক কিছুই করতে হবে।

XS
SM
MD
LG