অ্যাকসেসিবিলিটি লিংক

রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে মানবপাচারের ঢল


রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে মানবপাচারের ঢল
please wait

No media source currently available

0:00 0:07:51 0:00

সম্প্রতি রোহিঙ্গাদের নিয়ে একটি জাহাজ কক্সবাজার থেকে মালয়েশিয়া পৌঁছেছে এমন খবর ক্যাম্পে ছড়িলে পড়লে সাগর পথে রোহিঙ্গাদের মালয়েশিয়া যাওয়ার ঢল নামে। শরণার্থী ক্যাম্প থেকে রোহিঙ্গারা ছুটতে থাকে দালালের দেখানো পথে।

জীবনের অন্ধকার ভবিষ্যৎ দুর করতে রাতের আধাঁরে এক বুক স্বপ্ন নিয়ে গাড়ীতে উঠেছে এসব রোহিঙ্গা। ক্যাম্প জীবন থেকে মুক্তি পেতেই পালাতে চান তরুণরা। আর মালয়েশিয়া থাকা তরুণদের বিয়ে করে ঘর বাঁধতেই ক্যাম্প ছেড়েছেন অনেক রোহিঙ্গা তরুণী।

গাড়ির হেড লাইটের আলো, রাতের অন্ধকার ঠেলে এগিয়ে যাচ্ছে গন্তব্যে। পথে পথে চেকপোস্ট আর আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের চোখ ফাঁকি দিয়ে ছুটছে রোহিঙ্গারা। সব প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে এক সময় রোহিঙ্গারা পৌঁছে কক্সবাজার শহরে। পর্যটন নগরীর নিয়ন সাইনের আলোর ঝলক পুলকিত করে রোহিঙ্গাদের। তবে এখানেই থমকে যায় অনেক রোহিঙ্গার স্বপ্নযাত্রা। চোখ ধাঁধানো আলোর নিচে সজ্জিত কোন কক্ষে হয়তো অন্যকে পুলকিত করতে নিজের জীবনে নেমে আসে অন্ধকার। উৎসব আনন্দে হোটেল কেন্দ্রীক রোহিঙ্গা তরুণীদের বিশেষ চাহিদা বেড়েছে কক্সবাজারে। কক্সবাজার শহর থেকে ঝুঁকিপূর্ণ যৌন পেশায় কর্মরত বেশ কিছু রোহিঙ্গাকে ইতোমধ্যে উদ্ধার করে ক্যাম্পে ফেরত পাঠানো হয়েছে। এরপরও অমানবিক এসব কাজে নানাভাবে জিম্মি অনেক রোহিঙ্গা তরুণী। বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের সুর্যাস্তের সাথে দেখে তাদের জীবন-স্বপ্নের অস্ত যাওয়া। এরপরও অনেকেই দেখে বোটে করে মালয়েশিয়া যাওয়ার স্বপ্ন।

এরকম নানান স্বপ্ন নিয়ে নানান পথে ক্যাম্প ছাড়ছেন রোহিঙ্গারা। মেরিন ড্রাইভ সড়ক দিয়েও অনেক রোহিঙ্গা পাড়ি জমাচ্ছেন নানা গন্তব্যে। টেকনাফ, শাহপরীর দ্বীপ কিংবা কক্সবাজার শহরে চলে যাচ্ছেন কেউ কেউ।

একসময় এই রেজুখালকে বলা হতো মালয়েশিয়া যাওয়ার এয়ারপোর্ট। এখন সেখানে বসানো হয়েছে চেক পোস্ট। কিন্তু পাচারকারীরা বসে নেই; নতুন নতুন কৌশলে শুরু করেছে আদম পাচার।

কথিত আছে, রোহিঙ্গাদের ১০ থেকে ৫০ হাজার টাকায় বাংলাদেশী আইডি কার্ড এবং ৫০ হাজার থেকে দেড় লাখ টাকায় বাংলাদেশী পাসপোর্ট দিতে পারে দালালরা। এতে করে অনেক রোহিঙ্গা বাংলাদেশী সেজে ভিসা নিয়ে উড়াল দেয় বিভিন্ন দেশে।

যেসব রোহিঙ্গার এমন দালাল আর এতো টাকা নেই, তারা সাগরপথে মালয়েশিয়া যেতে চায়। কক্সবাজারের বিভিন্ন ঘাট থেকে বোটে করেই যাত্রা শুরু হয় তাদের। এক বুক স্বপ্ন নিয়ে এই যাত্রা শুরু হলেও; এ যেন এক অনিশ্চিত যাত্রা।

গত কয়েক দিনে রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে আদম পাচার নিয়ে অনুসন্ধান করতে গিয়ে বেরিয়ে এসেছে ভয়াবহ তথ্য। রোহিঙ্গা ক্যাম্প কেন্দ্রীক সক্রিয় হয়ে উঠেছে আদমপাচারকারী চক্র। পাচারকারী চক্রের প্রথম টার্গেট রোহিঙ্গা তরুণী। আর এই চক্রের ফাঁদে পড়ে মিয়ানমার থেকেও নতুন করে রোহিঙ্গা তরুণীরা আসছে বাংলাদেশে। এসব তরুণীদের অনেককেই দেশে-বিদেশে বিয়ের নামে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে যৌনকাজে।

ইতোমধ্যে কক্সবাজারের বিভিন্ন স্থান থেকে শতাধিক রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের অনেকেই দালালদের কাছে জিম্মি হয়েছিল।আগেও সাগর পথে মালয়েশিয়া যেতে গিয়ে অনেকের মৃত্যু হয়েছে। অনেকেই জিম্মি হয়েছেন নানাভাবে। কক্সবাজার থেকে মোয়াজ্জেম হোসাইন সাকিলের রিপোর্ট।

XS
SM
MD
LG